Date : 2019-11-18

টালাব্রিজ জটের জেরে বন্ধ ৩৫০টি বেসরকারি বাস পরিষেবা, চুড়ান্ত ভোগান্তি নিত্যযাত্রীদের….

কলকাতা: বেহাল স্বাস্থ্যের কারণে টালাব্রিজ বন্ধ হওয়ার জের, উত্তর কলকাতায় বিভিন্ন রুট মিলিয়ে প্রায় ৩৫০টি বাস পরিষেবা বন্ধ হয়ে গেল। এই বাসগুলি অধিকাংশই গন্তব্যে পৌঁছানোর জন্য টালাব্রিজ ব্যবহার করত। এদিকে লক্ষ্মী পুজো কাটিয়ে আজই অনেক সরকারি ও বেসরকারি অফিসে ছুটি শেষ হয়েছে। ফলে সপ্তাহের প্রথম কর্মব্যস্ত দিনে যানবাহনের এই পরিস্থিতির জেরে সমস্যার মুখে পড়তে হয় যাত্রীদের। এতদিন সমস্যার জেরে ধাপে ধাপে বাস বন্ধ হয়ে গেলেও আজ সোমবার সকাল থেকেই প্রায় ৮টি রুটের বাস বন্ধ হয়ে গেল। টালাব্রিজ বন্ধ হয়ে যাওয়ার জেরে ঘুর পথে যাতায়াত করতে হচ্ছিল বাসগুলিকে। ফলে জ্বালানির খরচ বেড়েছিল। এর জেরেই বেসরকারি বাস মালিক সংগঠন এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে বাধ্য হয়েছেন।

আরও পড়ুন : টালা ব্রিজের যানজট সামলাতে নোয়াপাড়া থেকে বাড়তি মেট্রোর পরিকল্পনা

উত্তর কলকাতা জুড়ে বন্ধ রয়েছে, ২০১, ২২২, ৩২-এ, ৩৪বি সহ বিভিন্ন রুটের বাস। বাস বন্ধ হওয়ার জেরে কর্মহীন হয়ে পড়েছে অসংখ্য বাস চালক ও কন্ডাক্টর। রাজ্য পরিবহন দফতরের কাছে আবেদন করা হয়েছে বিকল্প রুট নিয়ে চিন্তা ভাবনা করার।

আরও পড়ুন : টালা ব্রিজ ভাঙতে পূর্ত দফতরের টেন্ডার ডাকা হল

বুধবার এই নিয়ে পরিবহন দফতরের সঙ্গে বৈঠকে বসতে চলেছে বেসরকারি বাস সংগঠন, বৈঠকে ডাকা হতে পারে কয়েকটি অটো সংঘঠনকেও। সোমবার সকাল থেকে বাস না থাকার জেরে যে চিত্রটা উঠে এসেছে তাতে চিন্তার ভাঁজ পড়েছে নিত্যযাত্রীদের কপালে।

রাস্তায় বিভিন্ন রুটের বেসরকারি বাস না সিঁথির মোড় থেকে চিড়িয়ামোড় পর্যন্ত পথের দু ধারে অসংখ্য যাত্রীদের প্রতীক্ষা করতে দেখা যায়। অবস্থার সামলাতে পাইকপাড়া থেকে অস্থায়ী অটো পরিষেবা চালু হলেও তা পর্যাপ্ত পরিমানে না থাকায় যাত্রীদের দীর্ঘ প্রতিক্ষার লাইন চোখে পড়ে। সময়ের অপচয়ের পাশাপাশি যাতায়াতে খরচ হতে শুরু করেছে তিনগুন টাকা। সব মিলিয়ে কার্যত অচল শ্যামবাজার থেকে ডানলপের গোটা রাস্তা। এই বিপত্তির কথা স্বীকার করেছেন ডিসি ট্রাফিক সন্তোষ পান্ডে। এই পরিস্থিতিতে কপালে চিন্তার ভাঁজ পড়েছে প্রশাসনের। পরিস্থিতি কিভাবে নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব তার সদুত্তর মেলেনি এখনও।