Date : 2019-12-06

৯২ বছর বয়সেও গ্রামে গ্রামে ঘুরে স্বাস্থ্য পরিষেবা দিয়ে চলছেন এই বৃদ্ধা ….

ওয়েব ডেস্ক:- গ্রামে তাঁকে সবাই নানী বলে চেনে। ভালো নাম জাহিরা বেওয়া। ৯২ বছর বয়সেও তাঁর উদ্যম ও উদ্যোগ দেখলে আবাক হবে মানুষ। গ্রামের জন প্রতিনিধিকেও হয়তো সেই ভাবে চেনেন না মানুষ অথচ নানীর নাম দ্বিতীয় বার বলতে হয়না কাউকে। মুক্তিযুদ্ধের সময় হারিয়েছেন স্বামীকে। বাংলাদেশের প্রত্যন্ত গ্রামে দুই ছেলে নিয়ে সংসার চলে অনটনের মধ্যেই। আলো আসেনি গ্রামে, কিন্তু মানবতার আলো দেখেছে সেই গ্রামের মানুষ এক ডাকে গ্রামের ছেলে, বুড়ো, বউ, বাচ্চা সকলের তিনি নানী। বয়সের ভারে ঝুঁকেছে শরীর কিন্তু ৪৪ বছর ধরে রয়েছে অভ্যাস। বয়স বাড়লেও সেই অভ্যাস বদলাতে পারেননি ৯২ বছরের জাহিরা।

হংকংয়ে গণতন্ত্রীদের জয়

সকাল সকাল দুমুঠো ভাত খেয়ে বেরিয়ে পরেন সাইকেল নিয়ে। নিছক ঘুরতে বেড়াতে নয়, গ্রামে সকলের প্রিয় নানী সাইকেল নিয়ে ঘুরে বেরান মানুষের চিকিৎসা স্বার্থে। দিনরাত সাইকেলে ঘুরে গ্রামের অসুস্থ দরিদ্র মানুষকে স্বাস্থ্য পরিষেবা দিয়ে চলেছেন তিনি। সারাজীবন স্ব-উপার্জনের করেই সংসার চালিয়েছেন নানী, মানুষ করেছেন দুই পুত্রকে। কর্মজীবন থেকে অবসর নিলেও, সমাজসেবা ও মানুষের পাশে থেকেছেন সব সময়।

চিতা অজগরের লড়াই ভাইরাল নেটদুনিয়ায়

সাধ্য মতো চিকিৎসার সরঞ্জাম পৌঁছে দিয়ে চলেছেন মানুষের কাছে। নানীর প্রতিদিনের কাজ গ্রামের মানুষের স্বাস্থ্যের দেখভাল করা। বাস্তবে ফ্লোরেন্স নাইটেঙ্গেল গল্প অনেকেই শুনেছেন। মাদার টেরেসা বা বেগম রোকেয়ার সঙ্গে হয়তো কখনও উচ্চারিত হবে না নানীর নাম। নানীর মতো আলো সমাজের ছোট্টো পরিসরে থেকেও যেন গোটা সভ্যতাকে আলোকিত করে চলেছেন।