Date : 2021-02-28

রানিকুঠির পুকুরে মরণ ঝাঁপ ছাত্রীর, আত্মহত্যা নাকি অন্য কারণ?

কলকাতা:- বাড়িতে বকাবকির জেরে আত্মহত্যা করলেন দ্বাদশ শ্রেনীর ছাত্রী। ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ কলকাতার রানিকুঠি অঞ্চলে। শুক্রবার রাতে রানিকুঠি সংলগ্ন রানিদিঘি পুকুর থেকে উদ্ধার হয়েছে দ্বাদশ শ্রেনীর ওই ছাত্রীর মৃত দেহ। তদন্তকারীদের অনুমান, পড়াশুনো সংক্রান্ত বিষয়ে তাকে বকাবকি করে বাড়ির লোক। সেই কারণেই আত্মহত্যা করেছে সে। ছাত্রীর নাম সুমেধা বসু, স্থানীয় একটি ইংরাজী মাধ্যম স্কুলে পড়াশুনো করত সে। পড়াশুনোর পাশাপাশি তার মডেলিং-এর স্বপ্ন ছিল। তদন্তকারীদের অনুমান মডেলিং নিয়ে আপত্তি ছিল বাড়ির লোকের সেই জন্যই বেশ কিছুদিন ধরে মানসিক অবসাদে ভুগছিল সুমেধা।

মশার পর পোকার কামড়, স্ক্রাব টাইফাসে মৃত মুর্শিদাবাদের যুবক

ঘটনার দিন শুক্রবার টিউশন পড়ত যাওয়ার নাম করে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যায় সুমেধা। দীর্ঘক্ষণ পেরিয়ে যাওয়ার পরেও বাড়ি না ফেরায় খোঁজ শুরু হয় তার। অবশেষে রানিকুঠি সংলগ্ন রানিদিঘি পুকুরে সুমেধার দেহ ভাসতে দেখে স্থানীয় কয়েকজন যুবক। স্থানীয় এক যুবক সুমেধার দেহ উদ্ধারের চেষ্টা করলেও সম্ভব হয়নি। শেষে নেতাজি নগর থানায় খবর দিলে পুলিশ এসে ডুবুরি নামিয়ে উদ্ধার করে তার দেহ।

সূর্যের আলোয় গরুর কুঁজে সোনা ফলে! ব্যাখা দিলেন দিলীপ ঘোষ

রানিদিঘির পার থেকে মৃত ছাত্রীর স্কুলব্যাগ মোবাইল ও জুতো পাওয়া যায়। পুলিশ সূত্রে খবর, ওই অঞ্চল দিয়ে যাওয়ার সময় হঠাৎ-ই সে পুকুরে ঝাঁপ দেয়। এই মৃত্যুর পিছনে কি শুধুই পড়াশুনো নিয়ে বকাবকি কারণ? নাকি নিছক আত্মহত্যা বলে যা মন করা হচ্ছে তার নেপথ্যে রয়েছে অন্য কাহিনী! এই সব প্রশ্নের উত্তর খতিয়ে দেখছে তদন্তকারীরা।