Date : 2021-10-19

বিবিধের মাঝে মিলন বার্তা নিয়ে শুরু হল ‘ভারত সংস্কৃতি উৎসব’….

বর্ধমান:- শীত এসেছে বঙ্গে, সঙ্গে নিয়ে এসেছে একের পর এক উৎসর ডালি। শীতের সবচেয়ে বড় উৎসব বড়দিন আসতে এখনও অনেক সময় বাকি। তার আগে ২০ থেকে ৩১ ডিসেম্বর ২০১৯, কলকাতা ও বর্ধমান জুড়ে অনুষ্ঠিত হতে চলেছে ১২তম ‘ভারত সংস্কৃতি উৎসব’। ২০ থেকে ২৪ ডিসেম্বর বর্ধমান টাউন হল ময়দান, বর্ধমান জেলা পরিষদের অঙ্গীকার হল ও বর্ধমান মিউনিসিপ্যাল হাইস্কুলে এই অনুষ্ঠান হবে। এবছর এই উৎবের মোট বাজেট প্রায় ৫০ লাখ টাকা।

শুধু বর্ধমানে নয়, কলকাতার দেশপ্রিয় পার্ক, শরত স্মৃতি সদন, ট্র্যাঙ্গুলার পার্কেও অনুষ্ঠিত হবে ‘ভারত সংস্কৃতি উৎসব’। শুক্রবার সাংবাদিক বৈঠকে উৎসব কমিটির সম্পাদক প্রসেনজিৎ পোদ্দার জানিয়েছেন, এবছর থাইল্যাণ্ড, অষ্ট্রেলিয়া, ইন্দোনেশিয়া এবং দুবাই থেকে প্রায় ৪০জন প্রথিতযশা শিল্পী ও শিল্পী গোষ্ঠী আসছেন। বর্ধমানে আসছেন বিখ্যাত উড়িশি নৃত্যশিল্পী সুজাতা মহাপাত্র। এছাড়াও সিঙ্গাপুর, মালয়েশিয়া, আমেরিকা এবং জাপান থেকেও শিল্পীরা আসছেন।

১৫ হাজার টাকার বিনিময়ে সদ্যজাত কন্যাসন্তানকে বিক্রির চেষ্টা মায়ের

তিনি আরো জানান, মূলত ভারতীয় নিজস্ব সংস্কৃতির সেগুলির প্রচার, প্রসার এবং সেই শিল্পকলাকে আরও বাড়িয়ে নিয়ে যাবার লক্ষ্য নিয়েই এই উৎসবের সূচনা হয়েছিল। প্রায় ১০০ শিল্পীকে নিয়ে প্রথম এই উৎসব অনুষ্ঠিত হয়। এরপর অনুষ্ঠানের জনপ্রিয়তা বেড়ে যাওয়ার ফলে ক্রমশই বেড়েছে শিল্পীর সংখ্যা। এবছর তা বাড়তে বাড়তে প্রায় আড়াই হাজার শিল্পী এই উৎসবে অংশ নিতে চলেছেন। এই উৎসব প্রমান করে দেশ-বিদেশে ভারতীয় এই সংস্কৃতির প্রসার ঘটছে।

ট্রেনের ওভারহেডের তার ধরে আত্মহত্যা, বিদ্যুতের ঝটকায় দেহ ছিটকে পড়ল মাটিতে

উল্লেখ্য, এই উৎসবে নিজেদের গুণাবলীর সঠিক প্রদর্শন করতে পারলে বিদেশের কোন অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়ার সুযোগ মেলে শিল্পীদের। এছাড়াও ভারতবর্ষের কয়েকটি মেট্রোপলিটন শহরের বিখ্যাত শিল্পীদের সঙ্গে তাঁদের অনুষ্ঠান করার ব্যবস্থাও থাকে এখানে। ভারতীয় সংস্কৃতির প্রতি ঝোঁক ক্রমশই বাড়ছে বিদেশে। এদিনের সাংবাদিক বৈঠকে হাজির ছিলেন উৎসব কমিটির সদস্য শ্যামল দাস, তিলক দুবে ছাড়াও বিখ্যাত ভারত নাট্যম শিল্পী গুরু স্বামীনাথন পিল্লাই।