Date : 2019-12-06

কেন কোটা শহরের নাম? রিলিজের আগেই আইনি নোটিস পেল ‘মার্দানি-২’….

ওয়েব ডেস্ক:- মুক্তি পেতে এখনও অনেক সময় বাকি। তার আগেই প্রশ্নের মুখে পড়ল রানি মুখার্জির ‘মার্দানি-২’। যশরাজ ফিল্মস নিবেদিত এই ছবির বিরুদ্ধে সেন্সের বোর্ডের দ্বারস্থ হতে চলেছে কোটা শহরের বাসিন্দারা। ছবিতে দেখানো হয়েছে কোটা শহরের একজন ছাত্রী পড়াশুনো করতে আসেন। সেখানে এসে খুন ও ধর্ষনের শিকার হন তিনি। সেই ঘটনার তদন্ত করতে আসেন ইন্সপেক্টর শিবানী শিবাজী রায় ওরফে রানি মুখার্জি।

অ্যাসিড আক্রান্তকে বিয়ের শুভেচ্ছা জানিয়ে ট্যুইট শাহরুখের, ভাইরাল নেট দুনিয়ায়

ছবিতে খুনি ও ধর্ষনকারীকে কোটার বাসিন্দা হিসাবে দেখানো হয়েছে। শহর জুড়ে নারী নিরাপত্তার অভাবকে দেখানো হয়েছে। কোটা শহরকে ছবিতে অপরাধ প্রবন অঞ্চল হিসাবে দেখানো নিয়েই যত আপত্তি। তাদের দাবি, ছবিতে অন্য কোন শহরের নাম ব্যবহার করা হোক বা না হোক কোটার নাম ব্যবহার করা যাবে না।

সম্পর্কে জট! এবার ‘টনিক’ নিয়ে আসছেন দেব

ইতিমধ্যেই ছবির ট্রেলার লঞ্চ হয়েছে। ট্রেলারের রানি মুখার্জির একঝলকে মুগ্ধ তাঁর অনুরাগীরা। কোটা পরিষদের পক্ষ থেকে সেন্সর বোর্ডের প্রধান প্রসূন জোশী, ছবির প্রযোজক আদিত্য চোপড়া, পরিচালক গোপী পুথরণ আর তথ্য এবং সম্প্রচার মন্ত্রকে আইনি নোটিস পাঠানো হয়েছে। কোটা পরিষদের আইনজীবী অশ্বিন গর্গের দাবি, মর্দানি-২ সিনেমা থেকে বাদ দিতে হবে কোটা শহরের নাম। এমনকি কোটা শহরে শ্যুটিংয়ের বিভিন্ন দৃশ্যও ছবি থেকে বাদ দিতে হবে। দাবি না মানা হলে ছবির রিলিজ আটকাতে আদালতের দ্বারস্থ হবেন বলেও জানিয়েছেন ওই আইনজীবী। সব শেষে কোটার সাংসদ তথা ওম বিরলার কাছে অভিযোগ জানিয়েছেন কোটার বাসিন্দারা। অভিযোগের ভিত্তিতে ছবির পরিচালককে চিঠি পাঠিয়েছেন লোকসভার স্পিকার।