Date : 2020-01-24

মাথার চুল বেচে সন্তানদের অন্ন জোগালেন মা, চূড়ান্ত দারিদ্রতার দেখল দেশ!

ওয়েব ডেস্ক: এনআরসি, জেএনইউ, হিন্দু-মুসলিম দ্বন্দ্ব নিয়ে যখন খবরের কাগজের পাতায় ঝড় তখন এমন খবর চোখে জল আনবেই আপনার। নাগরিকত্ব ইস্যু নিয়ে যখন মানুষ ব্যস্ত তখন দেশের অর্থনীতিতে কখন ঘুন ধরছে। দারিদ্রতা এমন ভয়ানক ছবি উঠে এলো। নিজের তিন সন্তানের মুখে অন্ন তুলে দিতে নিজের মাথার চুল কেটে বিক্রি করে দিলেন মা। দুই, তিন ও পাঁচ বছরের তিন সন্তানের মুখে খাবার তুলে দিতে পারছিলেন না তাদের মা প্রেমা। পড়শিরাও সাহায্যের হাত বাড়ায়নি। নিজের মাথার সব চুল বিক্রি করে জুটেছে মাত্র ১৫০ টাকা।

কোচিতে ভেঙে ফেলা হল বেআইনি নির্মাণ

তাই দিয়েই তিন সন্তানের জন্য একদিনের খাবার জোগাড় করেছেন প্রেমা। তামিলনাড়ুর সালেমের বাসিন্দা প্রেমা তার তিন সন্তান ও স্বামীকে নিয়ে সংসার করতেন। বেশ কয়েকমাস আগে ধার-দেনায় ডুবে আত্মহত্যা করে প্রেমার স্বামী। তারপর থেকে তিন সন্তানকে নিয়ে চরম অর্থ কষ্টে দিন কাটাচ্ছেন তিনি। পড়শি, পরিজনের সাহায্য মেলেনি। অসহ্য অর্থ কষ্ট সহ্য করতে না পেরে তিন সন্তানকে নিয়ে আত্মহত্যার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন প্রেমা।

পুলিশের খাতায় কলকাতা নিরাপদ, কিন্তু শিশুরা?

সেই মতো ১৫০ টাকা কীটনাশক আনতে গিয়েছিলেন দোকানে। প্রেমার হাবভাব দেখে দোকানদার তাকে কীটনাশক বিক্রি করেননি। এর পর বিষাক্ত গাছ খেয়ে মরতে চেয়েছিলেন প্রেমা। কিন্তু তাতে বাধা দেয় তাঁর বোন। দিনের পর দিন দারিদ্রের সঙ্গে লড়াই! কতদিন আর মন শক্ত করে লড়তেন তিনি। প্রেমার দুর্ভাগ্যের কথা জানাজানি হওয়ার পর অবশ্য অনেকেই সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন। সালেমের জেলা প্রশাসন তাঁকে বিধবা ভাতা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।