Date : 2020-09-25

মাত্র একটা ফুল! আজ “গোলাপ দিবসে” ক্ষীরাইয়ে আস্ত বাগিচা উপহার দিন প্রিয়জনকে…..

ওয়েব ডেস্ক: ৯০ দশকের হিন্দি ছবির দৃশ্য মনে পড়ে? জনপ্রিয় গানটি শুরু হওয়ার আগে নায়িকা ছুটে যাচ্ছেন ফুলের বাগানের মাঝখান দিয়ে। রোমান্টিক দৃশ্যের সৌজন্যে থাকত বাগিচা। শহরের কংক্রিটের খাঁচায় তেমন সুন্দর বাগিচা আর কে বানাবে? গোলাপ দিবসে একটা ফুলের দাম যেখানে ১০০ টাকা ছাড়িয়ে যায় সেখানে আস্ত একটা ফুলের বাগান উপহার প্রিয়জনকে।

অনেকেই ভাবছেন হাজার হাজার টাকা খরচ করে কাশ্মীরে অথবা সিকিমে ছুটে যাওয়ার কথা। অথচ ঘরের কাছে রয়েছে এমন এক জায়গা যা হার মানিয়ে দেবে কাশ্মীর, সিকিমের ফুলের বাগানকে।

হাওড়া থেকে খড়গপুর বা মেদিনীপুর গামী ট্রেন ধরে পাঁশকুড়ার পরেই ক্ষীরাই স্টেশন। মাত্র ১ ঘন্টা ৫০ মিনিট পথ। ক্ষীরাই স্টেশনে নেমে তিন নম্বর লাইন ধরে বরাবর পাঁশকুড়ার দিকে প্রায় ২০মিনিট মতন হাঁটতে হবে আপনাকে।

ক্লাস চলাকালীন ছাত্র-ছাত্রীদের সামনে এ কি কাণ্ড করলেন শিক্ষক!

সরু মাটির পথ পেড়িয়ে কিছুদূর যাওয়ার পর পড়বে কসাই নদী। তার দুদিকে তাকালে চোখ জুড়িয়ে যাবে আপনার। বিঘার পর বিঘা জুড়ে ছড়িয়ে আছে রঙ-বেরঙের ফুল। বাংলার ফুল উপত্যকা ‘ক্ষীরাই’ এর নাম অনেকেই শুনেছেন। বিশেষত শীতকালে বাহারি ফুলে ভরে থাকে গোটা অঞ্চল। রাজ্যে ফুলের চাষের ৮০ শতাংশই এখানে হয়। ক্ষীরাই আসলে একটি নদীর নাম আর সেই নদীর নামেই গ্রামের নামকরণ করা হয়েছে।

করোনার প্রভাবে বন্ধ উৎপাদন, বড় ধাক্কা বিশ্বের বৃহত্তম গাড়ি শিল্পে

এখানে কোনো পাহাড়ি উপত্যকা নয়,নাই কোনো তুষারধবলিত অঞ্চল বা নিবিড় বনানি। তবে আছে এই বাংলার নির্ভেজাল স্বাদ, আছে বাংলার নদী-ঘর-মাঠ-মানুষ নিয়ে ভরা প্রকৃত ‘বাংলার মুখ’। তবে সবকিছুর মাঝেও যা সবাইকে বারবার ক্ষীরাইয়ের দিকে ছুটে নিয়ে যায়, তা হলো হাজারো ফুলের প্রাণ খোলা হাসির সমাহার বাংলার ফুলের উপত্যকা ক্ষীরাই। দুর্গাপুজোর আগে পরেই কাঁসাই ও ক্ষীরাই নদীর ডান ও বামদিকের মাইলের পর মাইল ক্ষেত জুড়ে বসানো হয় চারাগাছ , যা ডিসেম্বরের মাঝামাঝি থেকে ফেব্রুয়ারির প্রথমার্ধ অবধি নানা রঙের গালিচায় ভরে ওঠে নানা ফুলের গল্প নিয়ে।

কি নাই সেখানে? গাঁদা, গোলাও, আষ্টার, চন্দ্রমল্লিকা, মোরগঝুঁটি এবং আরো কত নাম না জানা ফুল। মাঠের পরে মাঠ ফুলের গালিচায় ঢাকা। ফুলের ক্ষেতে ব্যস্ত চাষিরা পরিচর্যায়। ফুল তো অবশ্যই প্রধান আকর্ষণ তবে বিপদ আছে পোকামাকড়ের। সব মিলিয়ে বলা যেতে পারে এই সময় প্রকৃতি তার রূপ রস গন্ধে ভরিয়ে রাখে এই ক্ষীরাই উপত্যকা। ভ্রমণ পিপাষু মানুষের দৃষ্টি এড়িয়ে যায় ক্ষীরাই। একটা গোলাপে প্রিয়জন তুষ্ট নয়? এই গোলাপ দিবসে তাকে উপহার দিন ক্ষীরাই উপত্যাকা।