Date : 2019-09-19

নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য, চলছে অ্যান্টিবায়োটিক…

কলকাতা: রক্তাল্পতায় ভুগছিলেন বেশ কিছুদিন ধরেই। তার মধ্যেই শরীরে জাকিয়ে বসল নিউমোনিয়া। ফুসফুসে সংক্রমণ ছড়িয়েছে ভালো রকম। বিশেষ করে ডানদিকের ফুসফুসে সংক্রমণের পরিমান অনেক বেশি। শনিবার মেডিক্যাল বুলেটিনে জানানো হয়। বেশ কিছুটা হলেও স্থিতিশীল অবস্থায় আছেন বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য। নিউমোনিয়া কতটা ছড়িয়েছে তা জানতে হয়তো সিটি স্ক্যান করা হতে পারে। ইতিমধ্যে অ্যান্টিবায়োটিক দেওয়া শুরু হয়েছে। চিকিৎসকদের তরফে জানানো হয়েছে, প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর শরীরে অপাতত অক্সিজেনের চাহিদা কিছুটা হলেও নিয়ন্ত্রণে।

Former CM Buddhadeb Bhattacharya (r) and Surya Kanta Mishra at an event put up by the Kolkata District Committee of CPIM to commemorate the 70th year of the end of fascism with the end of World War II at Pramod Dasgupta Bhavan in Kolkata on Tuesday. Express photo by Partha Paul. Kolkata.12.05.15

রক্তচাপ স্বাভাবিকই আছে। প্রসঙ্গত, দীর্ঘদিন ধরেই অসুস্থ রয়েছেন প্রবীন সিপিআইএম নেতা বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য। তাঁর রক্তে কার্বন-ডাই-অক্সাইডের পরিমান ক্রমশ বেড়েছিল। সেই কারণেই বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যকে বাই প্যাপ ভেন্টিলেশনে রাখা হয়েছে। এদিন তিনি চিকিৎসকদের সঙ্গে কথা বলেন, এমনকি বাড়ি ফিরতেও চান। চিকিৎসকদের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে নিউমোনিয়ার সংক্রমণ বেশি হওয়ার কারণে এখনই তাঁকে ছেড়ে ছুটি দেওয়া হচ্ছে না।

এদিন দু ইউনিট রক্ত দেওয়া হয়েছে প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীকে। উল্লেখ্য, প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর চিকিৎসার জন্য ডাঃ কৌশিক চক্রবর্তীর নেতৃত্বে গঠন করা হয়েছে একটি মেডিক্যাল বোর্ড। প্রয়োজনীয় সমস্ত ব্যবস্থা নিচ্ছেন তাঁরা। শনিবার বিকেলে সাংবাদিকদের এমনটাই জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞের সেই টিম। শুক্রবার শ্বাসকষ্টের সমস্যা নিয়ে আলিপুরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাঁকে। এরপরই বুদ্ধবাবুকে রাখা হয় আইসিসিউ-এর ৫১৬ নম্বর বেডে, চলতে থাকে চিকিৎসা। শনিবার সকালে স্বাভাবিক খাওয়া দাওয়া করেছেন তিনি। আত্মীয় স্বজনদের সঙ্গেও কথা বলেছেন। তবে এখনই তাঁকে বাড়ি যেতে দেওয়া হবে না বলেই উডল্যান্ডস সূত্রে জানিয়ে দেওয়া হয়।