Date : 2019-06-27

১০০ বছর বয়সে হিমালয় পাড়ি বৃদ্ধের…

ওয়েব ডেস্ক:  পাহাড়ের নেশার কাছে যেন যেকোনো নেশাই ফিকে। শারীরিক অক্ষমতাও যে মনের আগুণ নেভাতে পারে না তার প্রমাণ মিলল আরও একবার। পাহাড় চড়ার নেশায় মগ্ন কেরালার ৯৯ বছরের এক বৃদ্ধ। নাম, চিত্রণ নাম্বুদ্রিপাদ। ইতিমধ্যেই ২৯ বার ট্রেক করে এসেছেন বিভিন্ন পাহাড়ে।

এখন প্রস্তুতি নিচ্ছেন ৩০-তম ট্রেকের। খুব ছোটোবেলা থেকেই তাঁর নেশা পাহাড়ে পাহাড়ে পায়ে হেঁটে ঘোরার। ভাল কথায় যাকে বলে ট্রেকিং। কিন্তু সে নেশার সামনে যে বয়সও হার মানবে, তা ভাবতে পারেননি কেউ-ই। তিনি নিজেও বোধ হয় ভাবেননি, শতবর্ষের দোরগোড়ায় পৌঁছেও হাতে লাঠি তুলে নেওয়ার বদলে পিঠে রুকস্যাক তুলে নেবেন তিনি।

ইচ্ছের কাছে সবকিছুই যেন তুচ্ছ। তাই কোনোকিছুর তোয়াক্কা না করে অমোঘ টানেই চললেন হিমালয়ের বুকে। সেই পুরনো প্রেমের কাছেই ফিরে যেতে চান আবারও। ন’-দশ বছর বয়সে এক প্রতিবেশীর কাছে বিভোর হয়ে শুনতেন হিমালয়ের গল্প। সেই প্রতিবেশী নিয়মিত চষে বেড়াতেন পাহাড়ের আনাচকানাচ। তখন থেকেই ভালো লাগা শুরু চিত্রণের।

তবে নানা পিছুটান বেঁধে ফেলেছিল যুবক চিত্রণকে। তবে পাহাড়ের প্রতি টান এতটুকুও কমেনি। ত্রিশূরের বাসিন্দা, বৃদ্ধ চিত্রণ জানালেন, ১৯৯০ সালে প্রথম সুযোগ আসে হিমালয়ে যাওয়ার। সেই বছরেই কেদারনাথ, বদ্রিনাথ ঘুরে দেখেন তিনি। তার পর থেকে আর আটকে রাখা যায়নি ওনাকে।

প্রতি বছরই যেতেন হিমালয়ে। এই নিয়ে ২৯ বার হল। তবে  ২০১৯ সালের অক্টোবরে ১০০ বছর পূর্ণ হবে তাঁর। সেই মাসেই নিজের ৩০তম হিমালয় যাত্রা করতে চান এই বৃদ্ধ। তবে শুধু পাহাড় নয়, নিজের পেশার প্রতিও আবেগ কম নেই চিত্রণ নাম্বুদ্রিপাদের। জাতীয় পুরস্কারজয়ী শিক্ষাবিদ তিনি। নিজের গ্রামে প্রথম হাইস্কুলের প্রতিষ্ঠা করেছেন তিনিই। যেন তার এই স্বপ্ন পূরণের আশায় বাধা হয়ে না দাঁড়ায় তার শরীর।