Date : 2019-08-18

আপতকালীন ব্রেক কষে হাতির প্রাণ বাঁচাল ট্রেন চালক…

ওয়েব ডেস্ক: আবারও বন্যপ্রাণ হত্যার দায় নিতে হতো ভারতীয় রেলকে। তার বদলে এদিন ট্রেনের ব্রেক কষে হস্তি শাবককে বাঁচাল চালক। মঙ্গলবার ভোর ৬ টা নাগাদ মহানন্দা অভয়ারণ্যের ভিতর দিয়ে ছুটে যাচ্ছিল শিলিগুড়ি-দিনহাটা প্যাসেঞ্জার। আর তখনই গুলমা ও সেবক স্টেশনের মাঝে লাইনের উপর একটি বুনো হাতিকে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখান ট্রেনের চালক। সঙ্গে সঙ্গে সহকারি চালকের সহায়তায় আপদকালীন ব্রেক কষে তিনি থামিয়ে দেন ট্রেন। ট্রেন দাঁড়িয়ে পড়তে দেখে হাতিটি শুঁড় দিয়ে পেচিয়ে ধরে ট্রেনের কাউক্যাচারটি। বেশ কিছুক্ষণ লাইনের উপর দাঁড়িয়ে থাকার পর ধীরে ধীরে পাশের জঙ্গলে চলে যায় হাতিটি। ডুয়ার্সের জঙ্গলের ভিতর দিয়ে রেল পথ থাকায় হাতিদের গতিবিধি নিয়ে বরাবরই চিন্তিত থাকে রেল। আলিপুরদুয়ার থেকে শিলিগুড়ি পর্যন্ত ১৬০ কিলোমিটার রেলপথে হাতির ৮ টি করিডর রয়েছে। ট্রেনের ধাক্কায় হাতি মৃত্যু ঠেকাতে ২০১২ সালে রাজ্যের বনদফতর ও রেল যৌথ কমিটি গঠন করে। প্রতি তিনমাস অন্তর বৈঠক করেন এই কমিটির সদস্যরা। জপাইগুড়ি থেকে নাগরাকোট পর্যন্ত রেলপথে রাতে ট্রেনের গতিবেগ কমিয়ে ৩০ কিমি প্রতি ঘন্টায় করা হয়েছে। বিকেল পাঁচটা থেকে পরের দিন ভোর পাঁচটা পর্যন্ত এই গতিবেগেই ট্রেন চলার নির্দেশ দিয়েছে রেল কর্তৃপক্ষ। এছাড়া জঙ্গলের ভিতর দিয়ে ট্রেন চালানোর জন্য বিশেষ প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে রেল কর্মচারী ও গার্ডদেরও।