Date : 2020-12-05

সিডনির বুকে নাগিন ডান্স কোহলিদের

ওয়েব ডেস্কঃ ইংল্যান্ড সিরিজে রুটদের বিরুদ্ধে ১-৪ দেখে ভারতীয় দলের শক্তি বিচার করলে ভুল হবে। বিলেত সফর শেষে ভারতীয় দলের উদ্যেশ্যে এই বার্তা দিয়েছেন কোচ রবি শাস্ত্রী। কোচকে সমর্থন জানিয়েছিলেন দলের অধিনায়কও। তবে ভারতের অষ্ট্রেলিয়া জয়ের শেষে কোহলীদের মাষ্টারমশাই উচ্ছসিত হয়ে বলেন-এই সাফল্য ৮৩-র বিশ্বজয়ের সমান। এই প্রথম ভারতীয় দল হিসাবে অষ্ট্রেলিয়ায় সিরিজ জয়ের ইতিহাস গড়ে আবেগান্বিত হয়ে পরেন কোহলি বাহিনী। সোমবার তাই আক্ষরিক অর্থে ভারতীয় ক্রিড়া জগতের ঐতিহাসিক দিন ছিল। কোচ হিসেবে দলের জয়কে ব্যাখ্যা করতে গিয়ে পূজারাদের হেডস্যার বলেন, ‘এই জয় আমাকে চরম তৃপ্তি দিয়েছে। আমার কাছে অস্ট্রেলিয়ায় সিরিজ জয় ৮৩-র বিশ্বজয় কিংবা ৮৫-র ওয়ার্ল্ড চ্যাম্পিয়নশিপের সমান। কোন কোন ক্ষেত্রে অস্ট্রেলিয়ায় এই জয়কে আমি এগিয়েও রাখব। কারণ টেস্ট ক্রিকেট সবচেয়ে কঠিন ফরম্যাট।’ তবে ক্লাইভ লয়েডেদের ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধের ভারতের বিশ্বজয় তো ভারতীয় ক্রিকেটের মাইল স্টোন। তাই ৮৩-এর বিশ্বজয়ের সঙ্গে অষ্ট্রেলিয়ার সিরিজ জয়ের তুলনা করেছেন ভারতীয় দলের কোচ।তবে আনন্দের মাঝেও শাস্ত্রীর এমন মন্তব্য কিন্ত কাঁটা হয়ে ইতিমধ্যেই বিঁধতে শুরু করেছে ক্রিকেট অনুরাগীদের মনে। দলের অনুরাগীদের একাংশের মত সামান্য একটা সিরিজ জয়ের সঙ্গে ভারতের প্রথম বিশ্বকাপ জয়ের তুলনা কখনই চলেনা। তবে বিতর্কের রাস্তায় না গিয়ে দলের কোচের পাশেই দাঁড়িয়েছেন দলের অধিনায়ক। ম্যাচ শেষে একরাশ তৃপ্তি নিয়ে সাংবাদিক সম্মেলনে কোহলী জানান, ‘ভারতীয় দলের সদস্য হিসেবে এমন গর্ব আগে অনুভব করিনি। দলের অধিনায়ক হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের সময়ই লক্ষ্য স্থির করে নিয়েছিলাম। এরপর গত একবছর আমরা যা পরিশ্রম করেছি, আজকের সিরিজ জয় তার ফল। এককথায় এমন প্রতিভাদের নেতৃত্ব দিতে পেরে আমি গর্বিত।’ অষ্ট্রেলিয়া সিরিজের শেষে অধিনায়ক দলের সমস্থ খেলোয়ারকে এই জয় উৎসর্গ করে বলেন এই জয়ের অংশীদার সকলেই। নাচে গানে তিব্র উচ্ছাসে তেরঙ্গায় রাঙিয়ে উঠল এদিন সিডনি স্টেডিয়াম।