Date : 2021-03-03

ফেরিওয়ালা থেকে হিরো হলেন তিনি…

ওয়েব ডেস্ক: মনে পড়ে ‘কিক’-এর সেই ডায়লগ? যেখানে বলা হয়েছিল ‘ম্যায় পনরা মিনিট তক আপনা শ্বাস রোক সকতা হু’। বেশ পপুলারিটির শীর্ষে পৌঁছেছিল সংলাপটি। তবে এই সংলাপকে চরম শীর্ষে পৌঁছে দেওয়ার পিছনে যিনি ছিলেন তাঁর জীবন একেবারেই মসৃণ ছিল না। নিজের লক্ষ্যকে বাস্তবায়িত করতে তাকে হাজারো চড়াই উতরাই পেরিয়ে আসতে হয়েছিল। আর পাঁচটা স্ট্রাগেলরদের থেকে একেবারে আলাদা ছিলেন না তিনি। ইন্ডাস্ট্রিতে স্ট্রাগল করার সময় তাঁকে ধনেপাতা পর্যন্ত বিক্রি করতে হয়েছিল৷

তবে খারাপ পরিস্থিতিতে ভেঙে পড়েননি তিনি। বরং মুখ বুজে সবটা শিক্ষার মতো নিয়েছিলেন নওয়াজ সিদ্দিকি৷ ভালো স্ক্রিপ্টের খিদে মেটানোর জন্য তিনি দাঁতে দাঁত কামড়ে পড়েছিলেন ইন্ডাস্ট্রিতে৷ কোথাও কোনও কমপ্রোমাইজ নয়, নিজের অভিনয় দক্ষতার জোরে একের পর এক বড় প্রোজেক্টে কাজ করার সুযোগ পান নওয়াজ৷ ১০০ টাকার ধনেপাতা কিনে দ্বিগুণ দামে বিক্রি করার চেষ্টা করতেন নওয়াজ৷ কিন্তু এমনও অনেকদিন হয়েছে যেদিন কিনে আনা ধনেপাতাগুলি একেবারে নষ্ট হয়ে গিয়েছে।

তবে কথায় আছে না, ঠেক খেয়ে মানুষ শেখে। এরপরই তিনি শিখলেন কিভাবে ধনেপাতাতে জল ছিটিয়ে সতেজ রাখতে হয়। আসলে নিজের পেট চালাতে বহু মানুষকে বহু স্ট্রাগল করে আসতে হয়। কিন্তু ঠিক এইভাবেই ১৯৯৯ সালে আমির খান অভিনীত সরফরোশ ছবির হাত ধরে নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকি বলিউডে প্রবেশ করেন।