Date : 2021-10-16

সমীক্ষার ফলে আমল না দিয়েই কালীঘাটের পথে চন্দ্রবাবু…

ওয়েব ডেস্ক: বিজেপি বিরোধী জোট গঠনের কথা শুরু হয়েছিল আগেই। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে ইউনাইটেড ইন্ডিয়ার মঞ্চে এসে দাঁড়িয়েছিলেন অখিলেশ যাদব, চন্দ্রবাবু নাইডু, অরবিন্দ কেজরিওয়াল সহ বেশ কয়েকজন আঞ্চলিক দলের শীর্ষ নেতৃত্ব।

লোকসভা নির্বাচনের আগে আঞ্চলিক দলগুলির ঐক্যবদ্ধ নেতৃত্বে কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলার সংঘবদ্ধ কৌশল গ্রহণ করে এই মঞ্চে। লোকসভা ভোটের দিনক্ষণ যতই এগিয়েছে ততই রাজ্যে যুযুধান হয়েছে তৃণমূল ও বিজেপি। বেড়েছে রাজনৈতিক উত্তাপ, প্রকাশ্যে এসেছে দুইপক্ষের দ্বৈরথ।

ইতিমধ্যে শেষ হয়েছে সপ্তম দফার লোকসভা নির্বাচনের ভোট গ্রহণ প্রক্রিয়া। জাতীয় ও আঞ্চলিক স্তরের সংবাদমাধ্যমগুলিতে উঠে এসেছে বুথ ফেরৎ সমীক্ষার ফল। আংশিক ভাবে অনুমান ভিত্তিক ফল প্রকাশ করা হয়েছে সেখানে। আঞ্চলিক ও জাতীয় স্তরের বেশ কিছু সংবাদমাধ্যমের এই বুথ ফেরৎ সমীক্ষার উঠে এসেছে রাজ্যে শাসকদল তৃণমূলের শক্ত ঘাঁটিতে আছড়ে পড়তে পারে গেরুয়া ঝড়।

এই সমীক্ষাকে অবশ্য গুরুত্ব দিতে নারাজ তৃণমূল সুপ্রিমো সহ বিজেপি বিরোধী নেতৃত্ব। তাঁর বক্তব্য, ২৩ মে ফল প্রকাশ হলেই শুরু হবে সরকার গঠনের প্রক্রিয়া।

কেন্দ্রে বিজেপি বিরোধী মহাজোটের সরকার গড়তে সোমবার রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে আসেন অন্ধ্রপ্রদেশর মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নাইডু। কংগ্রেস সভাপতি রাহুল, বিএসপি নেত্রী মায়াবতীর সঙ্গে বৈঠক সেরে আজই বঙ্গসফরে আসছেন চন্দ্রবাবু নাইডু। ঐক্যের রণকৌশল নিয়ে আজ নবান্নে মমতার সঙ্গে বৈঠক করবেন টিডিপি সুপ্রিমোর।

সূত্রের খবর এর আগে কংগ্রেস-সহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলগুলির সঙ্গে বৈঠক সেরেছেন তিনি, ফোনে কথা হয়েছে তৃণমূল নেত্রীর সঙ্গেও। এরপর আজ মুখোমুখি হবেন দুই দলে সুপ্রিমো। ইতিমধ্যে বিজেপির সঙ্গে দুরত্ব তৈরি হয়েছে চন্দ্রবাবুর। এবার তাঁর রাজ্যে যদি জগমোহন সরকার ক্ষমতায় আসে তবে নিজের অস্তিত্ব সংকট দেখা দিতে পারে চন্দ্রবাবুর।

এই সমস্যা আটকাতেই বিরোধী জোটে বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিতে চাইছেন তিনি। ২৩ তারিখ ফলপ্রকাশের আগেই তাই সমীক্ষার রিপোর্টে আমল না দিয়ে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর দরবারে জোট প্রক্রিয়া এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার আর্জি জানিয়ে উপস্থিত হয়েছেন তিনি। তবে ২৩ এ ফলাফল প্রকাশের রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী আগে ভাগে সিদ্ধান্ত নেওয়ার বিষয়ে আগ্রহী নন বলেই সূত্রের খবর।প্রসঙ্গত, এদিন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ফোন করেন অখিলেশ যাদব। সমীক্ষাকে গুরুত্ব না দিয়ে মহাজোটের পক্ষেই সওয়াল করেন তিনি।