Date : 2020-09-26

করোনা সংক্রমণের আতঙ্কে সোনাগাছিতে খদ্দেরের আকাল, দুর্বিপাকে যৌনকর্মীরা

করোনা সংক্রমণের আতঙ্কে কাঁপছে গোটা বিশ্ব। সেই আতঙ্কের ছাপ পড়েছে কলকাতার বিভিন্ন যৌনপল্লিতেও। অসুস্থ হওয়ার আশঙ্কায় সোনাগাছিতে যাচ্ছেন না বেশিরভাগ খদ্দের। যার জেরে অথৈ জলে পড়েছেন যৌনকর্মীরা।

রাতের শহর যখন ঘুমিয়ে পড়ে তখন ব্যস্ততা শুরু হয় চিত্তরঞ্জন অ্যাভিনিউ, দুর্গাচরণ মিত্র স্ট্রিট, রবীন্দ্র সরণির অলিগলিতে। এই অংশগুলিই সোনাগাছি বলে পরিচিত। এই এলাকায় কমবেশি ১০ থেকে ১২ হাজার যৌনকর্মীর বসবাস। দোলের পর থেকে সেই সোনাগাছিতে খদ্দেরের সংখ্যা তলানিতে ঠেকেছে। করোনা সংক্রমণের ভয়ে সোনাগাছিতে পা মাড়াচ্ছেন নিয়মিত খদ্দেররা।

সোনাগাছিতে এমনিতে গড়ে প্রতিদিন ৩০ থেকে ৪০ হাজার খদ্দের আসে। দোলের পর থেকে সেই সংখ্যা অর্ধেকের কম হয়ে গিয়েছে। এর ফলে বিপাকে পড়েছেন যৌনকর্মীরা। বাড়ি ভাড়া বাকি পড়ছে। অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে রুটি রুজি। অনেককেই দেশের বাড়িতে টাকা পাঠাতে হয়। সেই টাকা পাঠানো আপাতত বন্ধ করেছেন অনেকেই। আয় কমেছে দালালদেরও।

করোনা ভাইরাস রুখতে সোনাগাছিতেও পড়েছে পোস্টার। সংক্রমণ এড়াতে সতর্ক করা হয়েছে যৌনকর্মীদের। কিন্তু সব কথা মানলে পেট চলবে না। তাই ঝুঁকি থাকলেও কাজে নামতেই হয়। এমন উভয় সঙ্কটে তাই স্পষ্টতই দিশাহারা সোনাগাছির যৌনকর্মীরা।