Date : 2021-09-20

প্রার্থী দেবে বিজেপি ? নাকি এবার‌ও ওয়াক‌ওভার তৃণমূলের

সঞ্জু সুর, রিপোর্টার : ভবানীপুরে ভোটের আবহেই আরো একটা নির্বাচনের ঘোষণা। এবার রাজ্যসভার নির্বাচন। বৃহস্পতিবার নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে জারি হয়েছে বিজ্ঞপ্তি। পশ্চিমবঙ্গ সহ আরো চারটি রাজ্যের মোট ছয়টি আসনে আগামী ৪ অক্টোবর হবে নির্বাচন।

পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনে প্রার্থী হ‌ওয়ার কারণে ৬ মে রাজ্যসভার সদস্য পদ থেকে পদত্যাগ করেন মানস রঞ্জন ভুঁইয়া। মানস ভুঁইয়া-র সেই ছেড়ে যাওয়া আসনেই হবে নির্বাচন। ভবানীপুর সহ রাজ্যের আরো দুই বিধানসভা আসনে ভোটের ফলাফল ঘোষণা ৩ অক্টোবর। ঠিক তার পরের দিনই রাজ্য বিধানসভায় হবে রাজ্যসভা আসনের ভোট। প্রসঙ্গত রাজ্যসভা নির্বাচনে একমাত্র বিধানসভার নির্বাচিত সদস্যরাই ভোট দেওয়ার অধিকারী। আর এই মুহূর্তে রাজ্য বিধানসভায় শক্তির নিরিখে তৃণমূল কংগ্রেস এর প্রার্থীর জয় সুনিশ্চিত। কিছুদিন আগেই দ্বিনেশ ত্রিবেদীর ছেড়ে যাওয়া আসনে ভোট হয়। সেই ভোটে তৃণমূল কংগ্রেস জহর সরকার কে প্রার্থী করেছিলো। রাজ্য বিধানসভার একমাত্র বিরোধী দল বিজেপি প্রার্থী না দেওয়ায় বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন জহর সরকার।

এরপর আরো কিছুটা সময় গিয়েছে। আরো কিছুটা শক্তি ক্ষয় হয়েছে বিজেপি-র। এদিকে আরো কিছুটা শক্তি বৃদ্ধি হয়েছে শাসকদলের। ৭৭ থেকে বিজেপি এখন ৭১-এ এসে দাঁড়িয়েছে। কয়েকজন বিধায়কের আচরণ নিয়ে সন্দেহ দেখা দেওয়ায় ইতিমধ্যেই তাঁদের কে চিঠি দিতে চলেছে বিজেপির শৃঙ্খলা রক্ষা কমিটি। ফলে প্রার্থী দিলে ঠিক কতজন দলের প্রার্থীর সমর্থণে ভোট দেবে তা নিয়ে যথেষ্ট সন্দেহের অবকাশ রয়েছে। ফলে গত মাস দেড়েক আগে হ‌ওয়া রাজ্যসভা নির্বাচনের মতো এক্ষেত্রেও বিজেপি আদৌ কোনো প্রার্থী দেবে কিনা তা নিয়ে যথেষ্ট সন্দিহান বিজেপির বিধায়করাই।

এদিকে যদি বিজেপি প্রার্থী দেয় ও ভোটের প্রয়োজন হয় এবং ভবানীপুুর আসনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জয়লাভ করেন তাহলে কি তিনি ভোট দিতে পারবেন ? রাজ্য বিধানসভার উপ মুখ্য সচেতক তাপস রায়-এর বক্তব্য “বিধানসভার অধ্যক্ষ যদি মনে করেন তাহলে ৪ তারিখ সকালেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে বিধানসভার সদস্য হিসাবে শপথ নেওয়ার ব্যবস্থা করতে পারেন।” পাশাপাশি তাপস রায়ের আরো বক্তব্য, “ওদের (বিজেপি-র) প্রার্থী দেওয়ার সম্ভাবনা কম। কারণ প্রার্থী দিলে নিজেদের ভঙ্গুর অবস্থা সামনে চলে আসতে পারে।”