Date : 2022-10-05

শিশুদের উপর মেজাজ হারিয়ে গুলি ছুঁড়লেন মন্ত্রীপুত্র, অভিযুক্তকে মারধর গ্রামবাসীদের

মাম্পি রায়, নিউজ ডেস্ক : বাগানে খেলছিল গ্রামের শিশুরা। তাতেই সংযম হারিয়ে গুলি চালান বিহারের মন্ত্রীপুত্র। আতঙ্কের জেরে হুড়োহুড়িতে পদপিষ্ট হন এক শিশু-সহ ছ’জন। তারপর অভিযুক্তকে বেদম মারধর করে ক্ষিপ্ত জনতা। রবিবার এমনই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে বিহারের পশ্চিম চম্পারণ জেলায়।

হরদিয়া গ্রামে বিহারের পর্যটনমন্ত্রী নারায়ণ প্রসাদের একটি ফার্ম হাউজ আছে। অভিযোগ, গ্রামের শিশুরা ওই বাড়ির বাগানেই এলাকার শিশুরা ক্রিকেট খেলছে বলে খবর পান তিনি। তারপরই লোকজন নিয়ে সেখানে পৌঁছন মন্ত্রীর ছেলে বাবলু কুমার। এরপর বাচ্চাদের ভয় দেখিয়ে সেখান থেকে তাড়াতে পিস্তল চালিয়ে শূন্যে গুলি চালান তিনি। হুড়োহুড়ির জেরে পদপিষ্ট হয়ে আহত হন এক শিশু-সহ কয়েকজন গ্রামবাসী। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যান স্থানীয়রা। অভিযোগ, তারপর বাবলুর আগ্নেয়াস্ত্র কেড়ে নিয়ে তাঁকে বেধড়ক মারধর করেন গ্রামবাসীরা। মন্ত্রীর নাম লেখা নম্বরপ্লেট খুলে তাঁর গাড়িও ভাঙচুর করা হয় বলে অভিযোগ। ভিডিওটি ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে গ্রামবাসীদের হাত থেকে বাবলুকে উদ্ধার করেন পুলিশকর্মীরা। পশ্চিম চম্পারণ জেলার পুলিশ সুপার উপেন্দ্র বর্মা জানিয়েছেন, গ্রামবাসীদের পাশাপাশি আহত হয়েছেন মন্ত্রীর ছেলেও। তাঁর আগ্নেয়াস্ত্র বাজেয়াপ্ত করেছে পুলিশ। ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এই ঘটনায় বিজেপির বিরুদ্ধে সরব হয়েছে বিহারের বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলি।

অন্যদিকে সমস্ত অভিযোগ খারিজ করেছেন মন্ত্রী নারায়ণ প্রসাদ। তিনি দাবি করেছেন, তাঁর ফার্মহাউজটি দখলের চেষ্টা চলছিল। খবর পেয়ে তাদের রুখতে সেখানে ছুটে যায় তাঁর ছেলে। প্রতিবাদ করতেই তার উপর হামলা চালানো হয় বলে অভিযোগ মন্ত্রীর। নারায়ণ প্রসাদ আরও বলেন, দুই তরফ থেকেই পাথর ছোড়াছুড়ি হয়েছে। দুপক্ষের লোকজন জখম হয়েছেন। তাঁর ছেলে গুলি চালাননি বলেও দাবি করেছেন মন্ত্রী।