Date : 2024-05-27

ভোটের মুখে ভাতা বাড়লো আশা ও অঙ্গন‌ওয়াড়ি কর্মিদের। বুধ সকালে ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর

সঞ্জু সুর, সাংবাদিক : রাজ্যের আশা ও অঙ্গন‌ওয়াড়ি কর্মিদের মাসিক ভাতা একলাফে বেশ কিছুটা বাড়ালো সরকার। বাড়ানো হলো অঙ্গন‌ওয়াড়ি সহায়ক কর্মিদের ভাতাও। বুধবার সকালে নিজের ফেসবুক পেজে এই ভাতা বৃদ্ধি সংক্রান্ত ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

একদিকে যখন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বারাসতের কাছাড়ি ময়দানে ‘নারী শক্তি বন্দনা’ সমাবেশে রাজ্যের মহিলাদের উদ্দেশে বার্তা দিচ্ছেন, ঠিক সেই সময়েই রাজ্যের মহিলাদের (আশা ও অঙ্গন‌ওয়াড়ি কর্মি) জন্য ভাতা বৃদ্ধির ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিন মুখ্যমন্ত্রী জানান, রাজ্যের কয়েক লক্ষ আশা ও অঙ্গন‌ওয়াড়ি কর্মিদের মাসিক ভাতা বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তিনি জানান, রাজ্যের আশা কর্মিদের ও অঙ্গন‌ওয়াড়ি কর্মিদের মাসিক ভাতা ৭৫০ টাকা করে বাড়ানো হলো।

পাশাপাশি অঙ্গন‌ওয়াড়ি সহায়ক কর্মিদের ভাতাও মাসে ৫০০ টাকা করে বাড়ানো হয়েছে। প্রসঙ্গত আমাদের রাজ্যে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ দপ্তরের অন্তর্গত আশা কর্মীদের সংখ্যা প্রায় ৭০ হাজার। এছাড়া নারী ও শিশু কল্যাণ দফতরের অধীনস্থ রাজ্যে মোট ১ লক্ষ ১৯ হাজার ৪৮১ টি অঙ্গনওয়াড়ি কেন্দ্রের মোট কর্মী ও সহায়ক মিলিয়ে সংখ্যা ২ লক্ষ ৩৮ হাজার ৯৬২ জন। এই অঙ্গন‌ওয়াড়ি কর্মিরা এতদিন মাসিক ভাতা পেতেন ৮,২৫০ টাকা। মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণা মতো ১ এপ্রিল থেকে এই ভাতা বেড়ে হবে মাসে ৯ হাজার টাকা।

অঙ্গনওয়াড়ি সহায়ক কর্মিরা এতদিন পেতেন ৬ হাজার টাকা। ৫০০ টাকা বৃদ্ধি হ‌ওয়ার ফলে পরের মাস (এপ্রিল) থেকে তারা হাতে পাবেন ৬,৫০০ টাকা করে। ইতিমধ্যেই ‘লক্ষীর ভান্ডার’ প্রকল্পের ক্ষেত্রে ভাতা বৃদ্ধির কথা ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। সেই অনুযায়ী লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পের প্রাপক মহিলাদের ভাতা বৃদ্ধি করা হয়েছে ২০০ থেকে ৫০০ টাকা। এই বিপুল পরিমান ভাতা বৃদ্ধি আসলে লোকসভা নির্বাচনের আগে রাজ্যের মহিলা ভোটারদের আকৃষ্ট করার প্রচেষ্টা বলেই মনে করছে সংশ্লিষ্ট মহল।