Date : 2020-10-23

লোকসভা নির্বাচনের আগে ব্রিগেডে মহাজোটের মেগা শো…

কলকাতা: ১৯ জানুয়ারি কলকাতার ব্রিগেডে হতে চলেছে বিজেপি বিরোধী মহাজোটের একত্রিত সভামঞ্চ। ১৯৭৭ সালে এই রাজ্যের তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী জ্যোতি বসুর আমন্ত্রণে সর্বভারতীয় স্তরের অ-কংগ্রেসি নেতৃত্বর সমাবেশ ঘটেছিল এই রাজ্যের মহামঞ্চে। ফের ২০১৯ লোকসভা ভোটের আগে বিজেপি বিরোধী শক্তিকে একত্রিত করতে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই প্রথম সর্বভারতীয় স্তরের মহাজোটের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। আর সেই মহাজোটের সমাবেশকে ঘিরে কলকাতার ব্রিগেড প্যারেড গ্রাউন্ডে মেগা র‍্যালির প্রস্তুতি এখন তুঙ্গে। ৪১ বছর পর বাংলার বুকে বিজেপির নেতৃত্বাধীন কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে এই সমাবেশে হাজির থাকছেন দেবগৌড়া, কুমারস্বামী, অরবিন্দ কেজরী ওয়াল, চন্দ্রবাবু নাইডু, অখিলেশ যাদব, তেজস্বী, অজিত সিং, শরদ পাওয়ার, ফারুক আবদুল্লা, ওমর আবদুল্লা, শত্রুঘ্ন সিনহা, যশবন্ত সিনহা, অরুন সৌরী, বাবুলাল মারান্ডি সহ বিশিষ্ট রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বরা। নবান্ন সূত্রের খবর, শারিরীক অসুস্থতার কারণে উপস্থিত থাকতে পারছেন না সোনিয়া গান্ধী, তবে কংগ্রেসের তরফে এই মহাজোট সমাবেশে প্রতিনিধিত্ব করতে থাকছেন মল্লিকার্জুন খার্গে। এছাড়াও জিগনেশ মেবানী ও হার্দিক প্যাটেল থাকছেন সভামঞ্চে। গতকাল নবান্নে সভামঞ্চের নিরাপত্তা ঘিরে বৈঠক হয়। তবে এই মহাজোটে বামেরা যোগ দেবেন কিনা সেই প্রসঙ্গে রয়েছে ধোঁয়াশা।

তবে কাশ্মীর থেকে শুরু করে উত্তরপ্রদেশ, অন্ধ্রপ্রদেশ, বিহারের প্রতিনিধিরাও থাকছেন ১৯ শে জানুয়ারির বিগ্রেড সমাবেশে। এদিন সভামঞ্চের গঠন নিয়ে আলোচনা হয় বৈঠকে। সভামঞ্চ গঠনের কাজে নিযুক্ত আছে প্রায় ৩০০ শ্রমিক। বিগ্রেডে সভামঞ্চের মূল মঞ্চটি হবে ১০০ ফুট লম্বা ও ৪৪ ফুট চওড়া এবং উচ্চতায় হবে ১০ ফুট। মূল সভামঞ্চের দুপাশে দুটি মঞ্চ থাকবে ৩২ ফুট লম্বা এবং ৪৪ ফুট চওড়া এবং তার উচ্চতা হবে ৮ ফুট। আবার এই সভামঞ্চের দুপাশে থাকবে আরো দুটি মঞ্চ, যার লম্বা হবে ৩২ ফুট, চওড়া ২৪ ফুট এবং উচ্চতায় হবে ৪ ফুট। সভামঞ্চ ঘিরে থাকবে এক হাজার মাইকের ব্যাবস্থা । থাকছে ২০ টিরও বেশি এলইডি স্ক্রিন। সভা শুরুর নির্ধারিত সময় বেলা সাড়ে ১২টা।

আরও পড়ুন…

লোকসভার আগে ফের ধাক্কা পদ্মশিবিরের

সভায় প্রবেশ করার জন্য থাকছে চারটি মূল গেট। সভামঞ্চ ঘিরে ইতিমধ্যে কড়া নিরাপত্তা বলয় নির্মাণ করেছে রাজ্য পুলিশ প্রশাসন। স্নিফার ডগ দিয়ে চলছে তল্লাশি, সভার দিন বাড়তি নিরাপত্তার জন্য ড্রোনের মাধ্যমে নজরদারি চালানো হবে কলকাতা পুলিশের তরফে। সভার নিরাপত্তা সংক্রান্ত এই বিশেষ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ,দীনেশ ত্রিবেদী, কাকলি ঘোষ দস্তিদার ,সুব্রত বক্সি, সাধন পান্ডে ,চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য ,সুখেন্দু শেখর রায় ও পার্থ চট্টোপাধ্যায় সহ তৃণমূলের শীর্ষ নেতৃত্ব, এছাড়াও কলকাতা পুলিশ কমিশনার, মুখ্য সচিব,স্বরাষ্ট্র সচিব রাজ্য পুলিশের প্রধান আই জি আইনশৃঙ্খলা সহ পুলিশের উচ্চপদস্থ আধিকারিকরা। ইতিমধ্যে রাজ্যে বিজেপির নেতৃত্বে লোকসভা ভোটের আগে গণতন্ত্র বাঁচাও যাত্রার নামে রথযাত্রার কর্মসূচী বাতিল করেছ সুপ্রিম কোর্ট। গোদের ওপর বিষফোঁড়া ১৯ জানুয়ারি ব্রিগেডের মহামঞ্চে সর্বভারতীয় স্তরের অ-বিজেপি নেতৃত্বের উপস্থিতি। বিজেপির বিরুদ্ধে যে মহাজোট গড়তে চলেছে তৃণমূল সুপ্রিমো তাতে লোকসভা নির্বাচনের আগে মোদী-শাহ জুটির কপালে যে দুঃশ্চিন্তার ভাঁজ ফেলবে তা বলার অপেক্ষা রাখে না।