Date : 2020-10-23

এবার জুতোর ফিতে বেঁধে দেবে স্মার্ট ফোন…

ওয়েব ডেস্ক: স্কুল হোক বা খেলার মাঠ, ছোট থেকেই একবার জুতো খুললে জুতোর ফিতে বাঁধতে সমস্যার সম্মুখীন হয় অনেকেই। তাই জুতোর ফিতে বাঁধা থেকে মুক্তি পেতে ফিতে ছাড়া জুতো পরায় আগ্রহী সবাই। কিন্তু কখনও ভেবেছন এই ফিতে বাঁধার জটিল সমস্যার সমাধান যদি আপনার স্মার্ট ফোনেই থাকে? এবার ফিতের ফাঁস থেকে মুক্তি দিতে বিশ্ব বিখ্যাত জুতো ব্রান্ড নাইকি বাজারে আনছে নতুন ধরনের ফিতে বাঁধার ট্রেনার জুতো। যা গ্রাহকদের পায়ের আকৃতি অনুযায়ী সহজেই ফিট হয়ে যাবে। তবে এই জুতাটির ধারণা পাওয়া গিয়েছিল ১৯৮৯ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত “ব্যাক টু দ্য ফিউচার পার্ট টু” চলচ্চিত্রে। পরে নাইকি গবেষনা করে এই জুতোর বাস্তব রূপ দান করেছে। ফেব্রুয়ারিতেই বাজারে আসতে চলেছে এই নতুন ধরনের জুতো। এই জুতো কিভাবে কাজ করবে জানেন? জুতার প্রধান বৈশিষ্ট্য হল ব্যবহারকারীরা চাইলেই এই জুতার ফিটিংসে নিজের মতো পরিবর্তন আনতে পারবেন। জুতার মাপ ইচ্ছামতো কাস্টমাইজড করতে পারবেন। এই পুরো কাজটাই করতে পারবেন স্মার্টফোন অ্যাপলিকেশনের মাধ্যমে। জুতার ফিতাকে অ্যাক্টিভেট করার জন্য জুতাটির মধ্যে আলাদা করে কোন বাটন বা বোতামের প্রয়োজন হয়না। জুতাটির সর্বশেষ এই সংস্করণের নাম দেয়া হয়েছে “নাইকি অ্যাডাপ্ট” এবং এর দাম ধরা হয়েছে ৩৫০ মার্কিন ডলার। লাইভ স্ট্রিমিং অ্যাপ “টুইচ”-এ এই জুতাটির উদ্বোধনী অনুষ্ঠান সম্প্রচার করা হয়।তবে মূলত খেলোয়াড়দের কচথা ভেবেই এই জুতো তৈরী করা হয়েছে। এই মুহুর্তে বাস্কেটবল খেলায় এই দুতোর জনপ্রিয়তা বেশী। নাইকির ক্রিয়েটিভ ডিরেক্টর এরিক অ্যাভার জানান, “নাইকি অ্যাডাপ্টের পরীক্ষামূলক ব্যবহারে আমরা আন্তর্জাতিকভাবে বাস্কেটবল খেলাটিকে প্রথমে বেছে নিয়েছি। কেননা এই খেলার অ্যাথলেটদের এ ধরনেরর জুতার প্রয়োজনীয়তা সবচেয়ে বেশি।” বাস্কেটবল খেলার সময় খেলোয়াড়দের পায়ের চলন দ্রুতগতিতে পরিবর্তিত হয়। তাদের পায়ে রক্তের প্রবাহ বাড়াতে জুতোটি শিথিল থাকা প্রয়োজন আবার কখনও বা আঁটসাঁট হওয়া প্রয়োজন। সেই প্রযুক্তি মেনেই তৈরী হয়েছে জুতোটি। ব্যবহারকারী যখন তার পায়ে জুতো ঢোকাবেন তখনই জুতায় থাকা কাস্টম মোটর এবং গিয়ার পায়ের স্নায়ু চাপ বুঝে প্রয়োজন অনুযায়ী ফিটিংস অ্যাডজাস্ট করে নেবে। নাইকি কোম্পানির অভিমত শুধু অ্যাথলেটরাই নয় নাইকির অধিকাংশ স্নিকারপ্রেমীরা তাদের সংগ্রহে এই জুতাটি রাখতে চাইবে।