Date : 2019-08-23

পারিবারিক বিবাদের জেরে সৎকার আটকে রইল কিংবদন্তি ফুটবলার পঙ্গম কান্ননের

ওয়েব ডেস্ক: ভারতীয় ফুটবলের ইতিহাসে কিংবদন্তি খেলোয়াড় হয়েও সেভাবে সম্মান পাননি তিনি। ফুটবল দুনিয়া তাঁকে ‘এশিয়ান পেলে’ নামে সম্মান করে। গোটা জীবনে বিতর্ক কখনও পিছু ছাড়েনি তাঁর। রবিবার কলকাতার ভবানীপুরে একটি বেসরকারী হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন পঙ্গম কান্নন। জীবিত অবস্থায় চূড়ান্ত আর্থিক সংকটের মধ্যে দিন কেটেছে তাঁর।

মৃত্যুর পরেও সংকট পিছু ছাড়ল না তাঁর। দুই স্ত্রীর মধ্যে বিবাদের জেরে সৎকার করা গেল না তার দেহ। রবিবার তাঁর মৃত্যু হলেও তৃতীয় স্ত্রী ও প্রথম স্ত্রীর মধ্যে বিবাদের জেরে দু দিন কেটে যাওয়ার পরেও তার সৎকার হয়নি। মঙ্গলবার পিস ওয়ার্ল্ড থেকে তাঁর দেহ মোহনবাগান ক্লাবে নিয়ে যাওয়ার আগেই সৎকার নিয়ে সমস্যা দেখা দেয় দুই স্ত্রীর মধ্যে।

দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষা করার পরেও ক্লাবের কর্তারা দেহ নিয়ে আসতে পারেননি ক্লাবে। কান্ননের এক স্ত্রী বিজয়লক্ষ্মী দাবি করেন তাঁর দেহ বেঙ্গালরুতেই সৎকার করা হবে। এই দাবিতে অমত প্রকাশ করেন তাঁর তৃতীয় স্ত্রী। দুই স্ত্রীর মতবিরোধ পৌঁছায় থানা পর্যন্ত।

দমদম থানায় অভিযোগ দায়ের করা হলে থানার তরফে প্রথম স্ত্রী বিজয়লক্ষ্মীর কাছে প্রয়োজনীয় নথিপত্র দেখাতে বলা হয়। সমস্যা সেখানেই শেষ নয়। তিনি জানান, তাঁর মেয়ে ও জামাই এসে কান্ননের দেহ নিয়ে যাবে বেঙ্গালুরুতে। এই ঘটনায় ৩ দিন কেটে গেলেও আটকে রয়েছে কান্ননের সৎকার।