Date : 2024-05-26

কেন বাতিল বীরভুমের বিজেপি প্রার্থীর মনোনয়ন!!

সঞ্জু সুর, সাংবাদিক : বীরভূম কেন্দ্রের বিজেপি(BJP) প্রার্থী দেবশীষ ধরের মনোনয়ন বাতিল হয়ে গেলো। তাঁর বদলে এই মুহূর্তে ওই কেন্দ্রে বিজেপি(BJP) প্রার্থী হিসাবে থাকলেন দেবতনু ভট্টাচার্য। কিন্তু কি কারনে দেবাশীষ ধরের মনোনয়ন বাতিল হলো? নির্বাচন কমিশন কিন্তু এক্ষেত্রে দেবাশীষ ধরকেই দায়ী করছে। অন্ততঃ কমিশন সূত্রে তেমনই খবর।

বিজেপি(BJP)

প্রাক্তণ আইপিএস দেবাশীষ ধর রাজ্য সরকারি চাকরি থেকে অবসর নিয়ে লোকসভা নির্বাচনে বীরভূম কেন্দ্রে বিজেপির টিকিটে প্রার্থী হয়েছিলেন। তাঁর প্রার্থী হ‌ওয়ার পর থেকেই রাজনৈতিক জলঘোলা শুরু হয়েছিলো। একদিকে তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে ২০২১ এর শীতলখুচির ঘটনার দায় সম্পূর্ণ তাঁর উপরে চাপিয়ে তাঁকে আক্রমণ করা শুরু হয়। এমনকি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও নির্বাচনী সভা থেকে দেবাশীষ ধরকে আক্রমণ করেন। দেবাশীষ ধরের মনোনয়ন নিয়েও প্রশ্ন তোলেন তিনি। দেখা গেলো সত্যি সত্যিই দেবাশীষ ধরের মনোনয়ন বাতিল হয়ে গেলো। কমিশন সূত্রে খবর, ২০১৬ সালের দিল্লি হাইকোর্টের একটি রায় অনুযায়ী যদি কোনো সরকারি আধিকারিক স্বেচ্ছাবসর নিয়ে ভোটের ময়দানে নামেন তাহলে তাঁকে একটি নির্দিষ্ট ফরম ফিলাপ করে জমা দিতে হয়। মনোনয়ন পত্রের সঙ্গে ২৬ নম্বর ফরমে একটি এফিডেভিট জমা দিতে হয়, যে এফিডেভিটে তাঁকে তাঁর নিয়োগকারি সংস্থা (এক্ষেত্রে রাজ্য সরকার)-র থেকে ‘নো ডিউস’ সার্টিফিকেট জমা দিতে হয়। সূত্রের খবর, দেবাশীষ ধর এই সংক্রান্ত সার্টিফিকেট জমা দিতে পারেন নি। তাই স্বাভাবিক নিয়মেই তাঁর মনোনয়ন বাতিল করা হয়েছে। এখন প্রশ্ন হচ্ছে এই ফরম ২৬ এ কি লিখতে হয় ? লিখতে হয় যে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি চাকরি ছাড়ার আগে যে যে পদে কাজ করেছেন, সেই সেই জায়গায় তাঁর কোনো হাউস রেন্ট, টেলিফোন বিল, ইলেক্ট্রিসিটি বিল বা অন্যান্য কোনো বিল বাকি নেই। তিনি তাঁর সবকিছু ডিউস মিটিয়ে দিয়ে এসেছেন। দেবাশীষ ধর এই ‘নো ডিউস’ সার্টিফিকেট জমা দিতে পারেন নি। বিজেপির(BJP) পক্ষ থেকে ইতিমধ্যেই দাবি উঠেছে যে রাজ্য সরকার প্রতিশোধস্পৃহা থেকেই এই সার্টিফিকেট দেয় নি। সদ্য স্বেচ্ছাবসর নেওয়া আরেক আইপিএস প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায় যেহেতু তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী হয়েছেন তাই তাঁর ক্ষেত্রে কিন্তু এই ‘নো ডিউস’ সার্টিফিকেট দিয়ে দেওয়া হয়েছে। উল্টোদিকে তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে যে দেবাশীষ ধর গত দুই বছর ধরেই কম্পালসারি ওয়েটিং এ পড়ে রয়েছেন, তাঁর বিরুদ্ধে ডিপার্টমেন্টাল এনকোয়্যারি চলছে। তিনি কি করে প্রার্থী হলেন।

আরো পড়ুন: কেন্দ্রীয় সরকারের উদাসীনতার জন্য কখনই মা হারা মেয়েকে তার অধিকার থেকে বঞ্চিত করা যাবে না – হাইকোর্ট