Date : 2020-01-24

মন্দার বাজারে চাল, ভুট্টার বাতিল অংশ দিয়ে বিস্কুট তৈরির পদ্ধতি দেখাল যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়

কলকাতা: দেশে অর্থনৈতিক মন্দার সবচেয়ে বেশি প্রভাব পড়েছে বিস্কুট ও গাড়ি শিল্পের উপর। বন্ধ হতে বসেছিল পারলে-জির মতো বেশ কিছু বিস্কুট কারখানা। পরিস্থিতি সামলাতে বিস্কুটের পরিমান কমিয়ে প্যাকেটের দাম বড়িয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় অনেক কোম্পানি। কিন্তু তাতেও সমস্যার সমাধান হয়নি। বন্ধ হয়ে গিয়েছে অনেক বিস্কুট কোম্পানি। বিস্কুট তৈরির প্রধান কাঁচামাল ময়দা, চিনি, মাখন এবার সেই জিনিসগুলির দাম বাড়ায় সমস্যায় পড়তে হয়েছে কোম্পানিগুলিকে। এমন পরিস্থিতিতে বিস্কুট কোম্পানিগুলির জন্য আশার আলো দেখালো যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়।

খাদ্য ও প্রযুক্তি বিভাগের একটি বিশেষ গবেষণার মাধ্যমে দেখানো হয়েছে ময়দা, চিনি, মাখন ছাড়াও তৈরি করা যেতে পারে বিস্কুট। চাল ও ভুট্টার অবশিষ্ট অংশ দিয়ে বিস্কুট তৈরির এমন তাক লাগানো গবেষণা খুশি করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদেরও। আখের চাষ কম হওয়ায় চিনির দাম বেড়েছে। চাল ও ভুট্টার মূল অংশ মদ তৈরির কাজে লাগে। বাকি অতিরিক্ত অংশ গবাদি পশুর খাবার হিসাবে বিক্রি করা হয়। এবার সেই অংশ দিয়েই কিভাবে বিস্কুট তৈরি করা যায় তা করে দেখাল যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়।

মাথার চুল বেচে সন্তানদের অন্ন জোগালেন মা, চূড়ান্ত দারিদ্রতার দেখল দেশ!

তবে বাতিল অংশ খাদ্য হিসেবে ব্যবহার করার বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক দেবব্রত বেরা। সেই মতো পরীক্ষা-নিরীক্ষাও শুরু হয়। গবেষণায় দেখা গেছে চাল ও ভুট্টা অবশিষ্ট অংশের মধ্যে প্রচুর পরিমানে প্রোটিন, ফাইবার, প্রচুর ভিটামিন ও অ্যান্টি অক্সিডেন্ট থাকে। তবে এর মধ্যে এমন কিছুও রয়েছে যা শরীরের ক্ষতি করতে পারে।

মৃত বাবার হেলমেট মাথায় লড়াই করার সংকল্প ১৯ মাসের শিশুকন্যার, ভাইরাল ছবি 

তাই দীর্ঘ গবেষণার পরেই চাল ও ভুট্টার বাতিল অংশ বিস্কুট তৈরির কাঁচামাল হিসাবে ব্যবহার করা যেতে পারে। অতিরিক্ত পরিমানে অক্সিডেন্ট থাকলে অনেক সময় খাবার কিছুটা তেতো হয়ে যায়। তবে ভুট্টার বাতিল অংশ বিস্কুট তৈরির কাঁচামাল হিসাবে ব্যবহার হলে ময়দার প্রয়োজন হবে না।