Date : 2020-09-25

নির্ভয়াকাণ্ডে মুকেশের প্রাণভিক্ষার আর্জি খারিজ করলেন রাষ্ট্রপতি, আত্মহত্যার চেষ্টা বিনয়ের

ওয়েব ডেস্ক: নির্ভয়াকাণ্ডে দণ্ডিত মুকেশ সিং-এর প্রাণ ভিক্ষার আর্জি খারিজ করলেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ। বৃহস্পতিবার রাতে নির্ভয়াকাণ্ডে অন্যতম দোষী সাব্যস্ত মুকেশ সিং-এর প্রাণভিক্ষার আর্জি রাষ্ট্রপতির কাছে পাঠানো হয়। নির্ভয়াকাণ্ডে সুপ্রিমকোর্টে মৃত্যুদণ্ডের উপর স্থগিতাদেশের আর্জি খারিজ হয়ে যাওয়ার পর মুকেশ সিং রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষার আর্জি জানান। সেই আবেদন দিল্লির লেফটানেন্ট গভর্নরের মাধ্যমে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের কাছে পাঠানো হয়। এরপর রাষ্ট্রপতির তরফে মুকেশ সিং-এর প্রাণভিক্ষার আর্জি খারিজ করে দেওয়া হয়। উল্লেখ্য, দিল্লির পাতিয়ালা হাউস কোর্ট নির্ভয়া মামলায় ৪ দোষীকে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দেয়। আদালতের নির্দেশ মত ২২ জানুয়ারি সকাল ৭ টায় তিহাড় জেলে মুকেশ সিং, বিনয় শর্মা, পবন গুপ্তা ও অক্ষয় কুমারের ফাঁসির ব্যবস্থা করা হয়। কিন্তু আইনি জটিলতার কারণে ফাঁসির দিন নিয়ে ধোঁয়াশা সৃষ্টি হয়।

স্টেশনে না থেমে ছুটল ট্রেন! অল্পের জন্য রেহাই পেল আপ শান্তিপুর লোকাল

নিয়ম অনুসারে দোষী সাব্যস্ত কোন ব্যক্তিকে আদালত মৃত্যুদণ্ডে দণ্ডিত করলে সে রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষার আর্জি জানাতে পারেন। রাষ্ট্রপতি সেই আর্জি খারিজ করে দিলে ১৪ দিন পর সেই মৃত্যুদণ্ড প্রাপ্ত ব্যক্তিকে ফাঁসি দেওয়া হয় এমনটাই নিয়ম। সেই প্রথা অনুযায়ী মুকেশের ফাঁসির তারিখ জানুয়ারির শেষে দিকে হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। অন্য দিকে বাকি দোষী বিনয় শর্মা, অক্ষয় ঠাকুর, পবন গুপ্তের হাতেও রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষার আবেদনের সুযোগ রয়েছে। যদিও ২২ জানুয়ারি ফাঁসির দিন ধরে রেখেই তিহাড় জেলে প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে।

১৫ দিন সংসার করে ইমাম জানতে পারলেন তাঁর স্ত্রী পুরুষ!

সেই মতো, চারজনকে জেলের তিন নম্বর ব্লকে নিয়ে আসা হয়েছে। প্রত্যেককে আলাদা আলাদা ব্লকে রাখা হয়েছে। সূত্রের খবর, সেখানেই আজ ফের আত্মহত্যা করার চেষ্টা করেন নির্ভয়াকাণ্ডে অন্যতম দোষী বিনয় শর্মা। আত্মহত্যার চেষ্টা করতেই তাঁকে ধরে ফেলে পুলিশ। উল্লেখ্য, নির্ভয়া মামলায় দোষী সাব্যস্ত চার জনকেই কড়া নিরাপত্তায় রাখা হয়েছে। সিসিটিভি ফুটেজে ধরা পড়ে বিনয় শর্মা তিহাড় জেলের মধ্যেই আত্মহত্যার চেষ্টা করে। বিনয় শর্মার আইনজীবী জানিয়েছেন, তিহাড় জেলের শৌচালয়ে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করার চেষ্টা করে বিনয় শর্মা। পুলিশের তৎপরতায় তাকে উদ্ধার করা হয়। যদিও এই পুরো ঘটনা অস্বীকার করেছে জেল কর্তৃপক্ষ।