Date : 2021-07-24

কিভাবে হবে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার মূল্যায়ন ?

করোনা অতিমারি আবহে বাতিল হয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকের লিখিত পরীক্ষা।আগের ক্লাসের পরীক্ষার নম্বর, প্রজেক্ট ও প্রাক্টিক্যালের নম্বরের ভিত্তিতে হবে মূল্যায়ন। মূল্যায়নে সন্তুষ্ট না হলে পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগ পাবে পরীক্ষার্থীরা। 20 জুলাইয়ের মধ্যে মাধ্যমিক আর 25 থেকে 30-এ জুলাই-এর মধ্যে উচ্চ মাধ্যমিকের ফলপ্রকাশের চেষ্টা করছে সংসদ ও পর্ষদ।ওয়েবসাইটে আপলোডের সময় নম্বরের ক্ষেত্রে কোনো গরমিল থাকলে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে হুঁশিয়ারি পর্ষদ ও সংসদের।

একনজরে দেখে নেওয়া যাক মূল্যায়ন পদ্ধতি

মাধ্যমিকের মূল্যায়ন পদ্ধতি

50-50 ফর্মুলায় মাধ্যমিকের নম্বর দেওয়া হবে। 50 শতাংশ নম্বর দেওয়া হবে নবম শ্রেণীর বার্ষিক পরীক্ষার। দশম শ্রেণীর অভ্যন্তরীন মূল্যায়নের ক্ষেত্রে 50 শতাংশ ধরা হবে। www.wbbsedata.com এই নম্বরে আপলোড করতে হবে নম্বর। 24 শে জুনের মধ্যে আপলোড করতে হবে। আপলোডের সময় পড়ুয়াদের নাম ও রেজিস্ট্রেশন নম্বর ভালো ভাবে খতিয়ে দেখার নির্দেশ দিয়েছে মধ্যশিক্ষা পর্ষদ।

উচ্চ মাধ্যমিকে প্রাক্টিক্যাল যুক্ত বিষয়গুলির ক্ষেত্রে লিখিত পরীক্ষা হয় 70 নম্বরের আর প্রজেক্ট যুক্ত বিষয়গুলির ক্ষেত্রে লিখিত পরীক্ষা হয় 80 নম্বরের। প্রাক্টিক্যাল ও প্রজেক্ট মিলিয়ে মোট 100 নম্বরের পরীক্ষা দিতে হয় পরীক্ষার্থীদের।

উচ্চ মাধ্যমিকের মূল্যায়ন পদ্ধতি

2019-এর মাধ্যমিকের চারটি বিষয়ের সর্বোচ্চ নম্বরের ভিত্তিতে 40 শতাংশ । 2020-এর একাদশ শ্রেণীর লিখিত পরীক্ষার 60 শতাংশ ধরা হবে। এর সঙ্গে যুক্ত হবে দ্বাদশ শ্রেণীর প্রাক্টিক্যাল ও প্রজেক্টের নম্বর।

যদি কোনও পরীক্ষার্থীর মূল্যায়ন পছন্দ না হয়। সে ক্ষেত্রে সেই পরীক্ষার্থী বোর্ডের কাছে পরীক্ষায় বসার আবেদন জানাতে পারে। করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে বোর্ড আয়োজিত লিখিত পরীক্ষায় বসার সুযোগ পাবে সে। তবে সেই লিখিত পরীক্ষার মূল্যায়নই চূড়ান্ত বলে ধরা হবে জানিয়েছে পর্ষদ ও সংসদ।