Date : 2022-10-06

বিধাননগর পুরনিগমের ৩৯টি আসনে জয়ী তৃণমূল, ১টি কংগ্রেসের এবং ১টি আসন গেল নির্দলের ঝুলিতে

মাম্পি রায়, নিউজ ডেস্ক : বিধাননগর পুরনিগমের 41টি আসনের মধ্যে 39টাতেই জয় ছিনিয়ে নিল তৃণমূল। একটি আসনে জয়ী হয়েছে কংগ্রেস। একটি আসনে জয়লাভ করলেন নির্দল প্রার্থী। বিধাননগর পুরনিগমের নির্বাচনে খালি হাতেই ফিরতে হল বিজেপি ও সিপিএমকে।

 বিধাননগর পুরনিগমকে নিজেদের দখলেই রাখল তৃণমূল কংগ্রেস। জয়ের পরই বিজয়োল্লাসে মেতে ওঠেন তৃণমূল সমর্থকেরা। একে অপরকে সবুজ আবির মাখিয়ে, নাচ-গানের মাধ্যমে আনন্দে মেতে ওঠেন তাঁরা। বিধাননগর থেকে জয়ী হয়েছেন 31নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল প্রার্থী সব্যসাচী দত্ত। 4হাজার 634 ভোটের মার্জিনে জিতেছেন তিনি। 29নম্বর ওয়ার্ড থেকে জয়ী হয়েছেন কৃষ্ণা চক্রবর্তী। 2হাজার 259 ভোটের মার্জিনে জিতেছেন তিনি। বিধাননগরের মেয়র হওয়ার দৌড়ে এগিয়ে রয়েছেন এই দুজন। ভোটে জিতেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়িতে ছুটে যান সব্যসাচী দত্ত। তার কিছুক্ষণ পরই দলের সুপ্রিমোর বাড়িতে যান কৃষ্ণা চক্রবর্তী।

41টি আসনের মধ্যে 39টাতেই জয় ছিনিয়ে নিল তৃণমূল কংগ্রেস। একটি আসনে জয়ী হয়েছে কংগ্রেস। জয়ী কংগ্রেস প্রার্থী 14নং ওয়ার্ডের গীতা সর্দার। একটি আসনে জয়লাভ করলেন নির্দল প্রার্থী মমতা মণ্ডল।

2015-এর বিধাননগর পুরনিগমের নির্বাচনের সঙ্গে এবারের ফলাফল তুলনা করলে দেখা যায়, তৃণমূল কংগ্রেসের প্রাপ্ত আসন সংখ্যা 2টি বেড়েছে। বামেদের 2টি আসন কমে শূন্যে পৌঁছেছে। প্রাপ্ত 2টি আসন থেকে একটি হারিয়েছে কংগ্রেস।

একনজরে দেখে নেওয়া যাক বিধাননগরে প্রাপ্ত আসন ও ভোট শতাংশ –

বিধাননগর (মোট ওয়ার্ড 41)

দল        আসনে জয়           প্রাপ্ত ভোট শতাংশ

তৃণমূল          39                 73.95

বামফ্রন্ট        00                 10.65

বিজেপি          00                  8.37

কংগ্রেস          01                  3.42

অন্যান্য          01                  3.48

 সবমিলিয়ে সবুজ ঝড়ে ভাসল বিধাননগর পুরনিগম। এর আগে 2015সালে রাজারহাট-নিউটাউন পুরসভার সঙ্গে বিধাননগর পুরসভাকে যুক্ত করে তৈরি হয়েছিল বিধাননগর পুরনিগম। প্রথমবারের নির্বাচনেও ব্যাপক ব্যবধানে জয়ী হয়েছিল তৃণমূল। সেবার মেয়র হয়েছিলেন সব্যসাচী দত্ত। পরবর্তীকালে তিনি যোগ দেন বিজেপিতে। বিধানসভা নির্বাচনে ভরাডুবির পর ফের তৃণমূলে ফিরে আসেন তিনি। আবার পুরনিগমের ভোটে জয়ী সব্যসাচী দত্ত। এখন বিধাননগরের মেয়র কে হচ্ছেন, একটাই প্রশ্ন রাজ্য রাজনৈতিক মহলে।