Date : 2019-08-26

তবু ধরে আছি হাত! এটাই মোহের সঙ্গে টানের তফাৎ …

ওয়েব ডেস্ক: একসঙ্গে থাকাটাও বোধহয় একটা অভ্যেস। আর সেই অভ্যেসের বয়স যদি হয় ৭০ বছর, তাহলে তো আর কথাই নেই। জীবনের নানা চড়াই উতরাই থেকে হাসি-কান্না, জীবনের প্রতিটা মুহূর্তের স্বাদ একসঙ্গে চেটেপুটে নেওয়া। ওরা তাই মৃত্যুর পরও সেই অভ্যেস ছেড়ে যেতে চাননি। মৃত্যুর পরও হাতে হাত। একই সঙ্গে অন্যলোকে পাড়ি দিলেন তাঁরা হাতে হাত রেখে। আরও একবার ভালোবাসার অনন্য এক নজির রেখে গেলেন পৃথিবীর বুকে। ফ্র্যান্সিস আর্নেস্ট প্ল্যাটেল ও নরমা জুন প্ল্যাটেলরের ভালোবাসা ইতিমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল। প্রেমই যে জীবনের অন্যতম চালিকা শক্তি সেটাই বুঝয়ে গেলেন ৯২ বছর বয়সী ফ্র্যান্সিস আর্নেস্ট প্ল্যাটেল ও তাঁর ৯০ বছর বয়সী স্ত্রী নরমা জুন। এক বা দুই নয় সত্তরটা বসন্ত কাটিয়েছেন একসঙ্গে। মৃত্যুর পরও সেই সম্পর্কে ছেদ পড়ল না। পরস্পরের হাতে হাত রেখে মৃত্যুবরণ করলেন দুজনে। বিশ্বজুড়ে এখন আলোচনার কেন্দ্রে অস্ট্রেলিয়ার এই দম্পতি। চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, নরমা দীর্ঘদিন ধরে আলঝেইমার রোগে ভুগছিলেন। বার্ধক্যজনিত কারণে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন ফ্র্যান্সিসও । দুজনকেই একই ঘরে পাশাপাশি খাটে রাখা হয়। হঠাত্ই একদিন শারীরিক অবস্থার অবনতি হতে থাকে নরমার । অস্বাভাবিকভাবে শ্বাস-প্রশ্বাস নিতে শুরু করেন তিনি। ফ্র্যান্সিসও অস্থির হয়ে ওঠেন তখনই। ১০ মিনিট অন্তর তাঁদের পরীক্ষা করছিলেন দেখাশোনার দায়িত্বে থাকা এক নার্স। দশ মিনিটের ব্যবধানে সেই নার্সই পরীক্ষা করতে এসে দেখেন, দুজনেরই শ্বাস-প্রশ্বাস বন্ধ হয়ে গিয়েছে। আর তখনও তাদের হাতে হাত রাখা। ইতিমধ্যেই নেটিজেনদের নজর কেড়েছে সেই ছবি। অনেকেই বলছেন এমন করে ক’জনই বা ভালোবাসতেন পারেন?