Date : 2019-06-26

“এবার ১০০ টি আসনও পাবে না বিজেপি” তোপ মমতার

শিলিগুড়ি: কার্শিয়াঙের সভা থেকে বিজেপির বিরুদ্ধে দেশের সেনা বাহিনীকে নিয়ে রাজনীতি করার অভিযোগ তুলেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিন উত্তরবঙ্গের শিলিগুড়ি শহরে বিজেপির বিরুদ্ধে ধর্ম নিয়ে রাজনীতি করার অভিযোগ তুলে আরও একবার তোপ দাগেন তিনি। দার্জিলিং লোকসভা কেন্দ্রে তৃণমূল প্রার্থী অমর সিং রাই-এর সমর্থনে এদিন শিলিগুড়ির বাঘাযতীন পার্কে জনসভা করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

“ধর্ম মানে মানবিকতা, যুদ্ধ নয়। ধর্মকে বিকৃত করছে বিজেপি, ধর্মের নামে সমাজকে কলঙ্কিত করতে চাইছে বিজেপি”, নির্বাচনী সভা থেকে কটাক্ষ করেন তৃণমূল সুপ্রিমো। পাশাপাশি তিনি বলেন, “বিজেপি ধর্মের নামে একটি ফ্যসিবাদী শক্তি। দেশের প্রতিটি অঞ্চল ভিত্তিতে শক্তিশালী আঞ্চলিক দলগুলি নির্বাচনের ফলাফলে এগিয়ে থাকুক এমনটাই চায় তৃণমূল কংগ্রেস।”

দেশজুড়ে চলছে নির্বাচনী বিধি, তারই মধ্যে রামনবমীকে কেন্দ্র করে বিজেপির অস্ত্র মিছিলে আপত্তি জানিয়েছে রাজ্য সরকার। বিজেপি সঙ্গে এই নিয়ে চাপানউতোড় শুরুও হয়েছে রাজ্য প্রশাসনের। এদিন শিলিগুড়ির নির্বাচনী সভা থেকে রামনবমীতে অস্ত্র মিছিল করা নিয়ে বিজেপি এবং আরএসএস-কে একযোগে আক্রমণ করেম মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

তিনি বলেন, “আরএসএস বাংলার সংস্কৃতি এবং ঐতিহ্যকে পরোয়া করে না। কেউ গদা, কেউ তলোয়ার নিয়ে ভোট চাইতে বেরিয়েছে, মনে রাখবেন বাংলায় এভাবে ভোট পাওয়া যায় না।”

শিলিগুড়ির মানুষের কাছে এদিন কাজের খতিয়ান তুলে ধরে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, রেলমন্ত্রী থাকাকালীন রেলওয়ে রিক্রুটমেন্ট বোর্ড গড়ে দিয়েছেন শিলিগুড়িতে, পদাতিক, কাঞ্চনকন্যা সহ একাধিক উত্তরবঙ্গগামী এক্সপ্রেসের ট্রেনের উদ্বোধন হয় তাঁর আমলে। তিনি বলেন, “বেঙ্গল সাফারি পার্ক থেকে শুরু করে, গাজোল ডোবায় ‘ভোরের আলো’, বাগডোগরা এয়ারপোর্টের সম্প্রসারন সবই আমার করা।”

তিনি আশ্বাস দিয়ে বলেন, ভোট পর্ব মিটলে উত্তরবঙ্গে ট্রাফিক ব্যবস্থা নিয়ে বৈঠক করবে রাজ্য সরকার। শিলিগুড়ি শহরে উন্নয়নে কোন কাজই করে না বামফ্রন্ট বলে কটাক্ষ করেন তিনি। নির্বাচনী প্রচার সভায় তরুণ প্রজন্মকে দেশের ভবিষ্যৎ হিসাবে এগিয়ে আসার ডাক দেন তৃণমূল নেত্রী।

ছাত্র ও যুব সম্প্রদায়কে উজ্জীবিত করতে ‘উৎকর্ষ বাংলা’ প্রকল্প তরুণ প্রজন্মকে উৎসর্গ করেন তৃণমূল সুপ্রিমো। দার্জিলিং-এর পর এদিন আরও একবার শিলিগুড়ির সভা থেকে আত্মবিশ্বাসের সুরে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “এনআরসি, নোটবন্দির মতো ঘটনায় সারা দেশের মানুষ ক্ষতিগ্রস্থ। কেন্দ্রে বিজেপি ১০০ আসনেও জয় লাভ করতে পারবে না।”

রাজ্যের বিরোধী শক্তি বাম, কংগ্রেস ও বিজেপির মতাদর্শ ও নীতি লোপ পেয়েছে বলে আক্রমণ করেন তৃণমূল সুপ্রিমো, “সিপিআইএম, বিজেপি এবং কংগ্রেস মিলে রাজ্যে রামধনুর খেলা চলছে। সকালে সিপিআইএম দুপুরে বিজেপি এবং রাতে কংগ্রেস করে বেরাচ্ছে এরা।” সভার শেষে এদিন ‘স্বাস্থ্যসাথী’ প্রকল্পে বরাদ্দ ৫ লক্ষ টাকা শিলিগুড়ির মানুষের কাছে পৌঁছে দেওয়ার কথা ঘোষণা করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শিলিগুড়ি জনসভা করে আজই কলকাতায় ফিরবেন তিনি।