Date : 2019-08-23

শেষ দফার আগে শহরে মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিকের বৈঠক

কলকাতা: ষষ্ঠ দফা নির্বাচন শেষ হতেই সপ্তম দফার প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে নির্বাচন কমিশন। রবিবার রাতে শহরে পা রাখেন উপ নির্বাচন কমিশন সুদীপ জৈন। শেষ দফায়, ১৯ মে কলকাতার দুই কেন্দ্র সহ রাজ্য জুড়ে ৯টি লোকসভা কেন্দ্রে ভোট হবে। বিশেষ করে দুই ২৪ পরগণায় শেষ দফা ভোট বেশি গুরুত্বপূর্ণ। এদিন উপ নির্বাচন কমিশনার শহরে এসে নির্বাচনী প্রস্ততি নিয়ে বৈঠক করেন সংশ্লিষ্ট পর্যবেক্ষক, রিটার্নিং অফিসারদের সঙ্গে, এছাড়া রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধিদের সঙ্গেও এদিন বৈঠক করেন সুদীপ জৈন।

শেষ দফা ভোটের আগে শহরে মুখ্য নির্বাচন কমিশনরের আগমন ভোটে বাড়তি সতর্কতার ক্ষেত্রে যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ। এদিন বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন কমিশনের বিশেষ পর্যবেক্ষক অজয় নায়েক এবং বিশেষ পুলিশ পর্যবেক্ষক বিবেক দুবে। সকাল ১১ থেকে ১ টা পর্যন্ত বৈঠকে এদিন গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি বিষয় সম্পর্কে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

৯টি কেন্দ্রের নির্বাচনে ১৭,০৪২টি বুথে ৬৭৩ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী উপস্থিত থাকবে। বুথের আসে পাশে অবৈধ জমায়েত হলে সঙ্গে সঙ্গে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানান মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিক। এমনকি বুথের কাছাকাছি ক্লাবগুলি বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে নির্বাচন কমিশনের তরফে।

ভোট উপলক্ষ্যে কলকাতা ও বিধাননগরে বাড়তি সতর্কতা রাখতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে নির্বাচন কমিশনের তরফে। শেষ দফা ভোটের নিরাপত্তা সংক্রান্ত বিষয় নিয়েই এদিন আলোচনা করে শেষ হয়নি বৈঠক। ভোট শেষের দুদিনের মধ্যে গণনা নিয়েও এদিন কথা বলেন মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিক সুদীপ জৈন।

ইতিমধ্যে বেঙ্গল চেম্বার অফ কমার্সের কন্ফারেন্স রুমে একটি ডামি গণনা কেন্দ্র তৈরি করে সেখানে ভোট গণনা সংক্রান্ত বিষয় বিশেষ প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে ভোট কর্মীদের। এবার ইভিএম-এর পাশাপাশি ভিভিপ্যাটের ব্যবস্থা রয়েছে। ভোট কর্মীদের গণনা সংক্রান্ত বিশেষ প্রশিক্ষণ দিতে কমিশনের তরফ থেকে ব্যাবস্থা করা হয়েছে।