Date : 2021-09-20

সিনেমাওয়ালার দিন বদলের নতুন আলো “প্রাচী সিনেমা”

রাকেশ নস্কর, রিপোর্টার : সিনেমাওয়ালার দিন বদলের নতুন আলো “প্রাচী সিনেমা”। যেখানে বাংলার সিঙ্গল স্ক্রিনগুলির ক্ষেত্রে অশনি সংকেত পাওয়া গিয়েছে। বন্ধ হয়েছে বাংলার বিভিন্ন প্রান্তের একাধিক প্রেক্ষাগৃহ। অন্যদিকে আশার আলো দেখাল তিলোত্তমার বুকে প্রাচী সিনেমা।নবরূপে ফিরে এলো প্রাচী সিনেমা। ঝলমলে আলো অনুসরণ করে লাল কার্পেটে মোড়া সিড়ি বেয়ে উঠে গেলে, দর্শকদের লাল গ্যালারি, রাজকীয় করে তুলেছে বাংলা সিনেমার পীঠস্থানকে। উত্তর কলকাতার শিয়ালদহ সংলগ্ন এলাকায় দর্শকদের মনোরঞ্জনে 73 বছর পার করে ফেলেছে এই সিনেমা হল।

তিন পুরুষ ধরে দর্শকদের মনোরঞ্জনের দায়িত্ব নিয়েছেন বর্তমান সময়ের কর্ণধার বিদিশা বসু। সিনেমার বিকল্প কখনও ওটিটি হতে পারে না। দর্শকরা প্রেক্ষাগৃহে এসেই সিনেমা দেখবেন বলে আশাবাদী প্রাচী সিনেমার কর্ণধার।

প্রাচীর প্রত্যাবর্তনকে সাধুবাদ জানিয়েছেন সিনেমা জগতের বিশিষ্টরা। শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়, অরিন্দম শীলের চিত্র পরিচালক উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন প্রাচী ফিরে আসার গল্পে। শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় ফেসবুকে লিখেছেন, “নতুন রূপে প্রাচী সিনেমা, সবাইকে আমন্ত্রণ জানাই”। পরিচালক অরিন্দম শীল লিখেছেন, ” দারুণ ব্যাপার। বাংলা সিনেমার ভালো হোক”।

উত্তম কুমার, সত্যজিত্ রায়ের ছবি একসময় জায়গা করে নিয়ে প্রাচী সিনেমা হলে। বাংলার ঐতিহ্যবাহী এই সিনেমা হলের দরজা দর্শকদের প্রতিনিয়ত খোলা থাকুক সেই আশাই করা যায়।