Date : 2022-10-01

বৈঠকে স্থায়ী সমাধান সূত্রের দাবি বউবাজারের ক্ষতিগ্রস্ত বাড়ির বাসিন্দাদের

নাজিয়া রহমান, সাংবাদিক:-ক্ষোভে ফুঁসছেন বউবাজারের ক্ষতিগ্রস্ত বাড়ির বাসিন্দারা। রবিবার মেট্রোরেল কর্তৃপক্ষের উপস্থিতিতে তাদের নিয়ে বৈঠকে বসেন সাংসদ সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়।সেই বৈঠকে ক্ষতিগ্রস্ত বাড়ির বাসিন্দাদের কাছে ক্ষমা চান কে এম আর সি এল -এর এম ডি সি এন ঝা ।বৈঠকে অবিলম্বে স্থায়ী সমাধানের দাবি তোলেন ক্ষতিগ্রস্ত বাড়ির বাসিন্দারা।

বউবাজারে ফিরেছে ২০১৯ এর আতঙ্ক। প্রায় শেষের পথে ইস্ট ওয়েস্ট মেট্রোর কাজ। শেষ বলায় ফের বিপত্তি। ফের ফাটল বউবাজারের দুর্গা পিতুরি লেনের প্রায় ১০টি বাড়িতে । ওই রাতেই ঘর ছাড়তে হয় সেই বাড়িগুলির বাসিন্দাদের। এই ঘটনায় ক্ষোভে ফুঁসছেন ক্ষতিগ্রস্ত বাড়ির বাসিন্দারা। রবিবার তৃণমূল কংগ্রেসের সাংসদ সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়, বিধায়ক নয়না বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপস্থিতিতে কেএমআরসিএলের কর্তাদের সঙ্গে বৈঠক হয় বউবাজারের ক্ষতিগ্রস্ত বাড়ির বাসিন্দাদের।অবিলম্বে স্থায়ী সমাধান চাই বলে বৈঠকে মেট্রোরেল কর্তৃপক্ষের কাছে দাবি তোলেন বাসিন্দারা।

এদিন মেট্রোর তরফে জানানো হয় বউবাজারের ১৬ এবং ১৬/১ এর এই বাড়ি দুটি ভেঙে ফেলা হবে। তার আগে আবাসিকদের মালপত্র বের করে নেওয়া হবে। সম্পূর্ণ বিষয়টি মেট্রোর তরফ থেকেই করা হবে।পুরো বিষ়টিই ভিডিয়োগ্রাফি করা হবে। এই দুটি বাড়ি নিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হচ্ছিল না বলে বৈঠকে ক্ষোভ প্রকাশ করেন এই বাড়ির বাসিন্দারা।

এটা কেন্দ্রীয় সরকারের বিষয় হলেও রাজ্য সরকারের তরফেও সমস্ত রকম সাহায্য করা হবে বলে বৈঠকে জানান সাংসদ সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়। পাশাপাশি তিনি এটাও বলেন প্রতি ১৫ দিন অন্তর কতদূর কাজ এগোল তা তিনি দেখবেন ও কথা বলবেন বাসিন্দাদের সঙ্গে। এদিনের বৈঠকে ক্ষতিগ্রস্ত বাসিন্দাদের পক্ষে মেট্রোরেলের কাছে সওয়াল করেন বিধায়ক নয়না বন্দ্যোপাধ্যায়ও।

নিজেদের ‘ভুলের’ জন্য দুর্গা পিতুরি লেনের বাসিন্দাদের সামনে দুঃখ প্রকাশ করেন কেএমআরসিএল এর এমডি সি এন ঝাঁ। তিনি এদিন জানান, গতবারের দুর্ঘটনার পর আরও বেশি সতর্ক কেএমআরসিএল। কিন্তু, ফের বিপর্যয় ঘটায় তারা দুঃখিত বলে জানান কেএমআরসিএল -এর এমডি সি.এন ঝা বাসিন্দাদের কাছে এর জন্য ক্ষমাও চান তিনি

কলকাতা পুরসভার ‘মহানাগরিক’ এর নির্দেশ অনুযায়ী যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশেষজ্ঞদের থেকে পরামর্শ নেওয়া হচ্ছে। তাদের রিপোর্ট। পাশাপাশি আইআইটি রুড়কির ইঞ্জিনিয়ারদের কাছে সাহায্য চেয়েছে কেএমআরসিএল। বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ মোতাবেক আগামীদিনে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জানায় কেএমআরসিএলের কর্মকর্তারা।