Date : 2020-10-02

মেঙ্গালুরু আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বিষ্ফোরক উদ্ধার, ঘটনায় জড়িত ব্যক্তি আত্মসমর্পণ করল

ওয়েব ডেস্ক: মেঙ্গালুরু আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে আইইডি বিষ্ফোরক বোঝাই ব্যাগ উদ্ধার ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছিল গত সোমবার। ঘটনার সিসিটিভি ফুটেজ পরীক্ষা করে দেখা গেল এক ব্যক্তি ব্যাগটি বিমানবন্দরে রেখে চলে যাচ্ছে। বিষয়টি প্রকাশ্যে আসতেই পুলিশ হন্নে হয়ে ব্যক্তির খোঁজ শুরু করেছিল। বুধবার থানায় এসে ওই ব্যক্তি আত্মসমর্পণ করে। পুলিশ সূত্রে খবর, ওই ব্যক্তির নাম আদিত্য রাও। তিনি বুধবার সকালে ডিজিপি-র বাসভবনে হাজির হন। মেঙ্গালুরু আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বিষ্ফোরণ ঘটানোর উদ্দেশ্য ছিল তার সেই দোষ পুলিশের কাছে স্বীকার করে নেন তিনি। এরপর তাকে হালাসুরগাট থানায় নিয়ে যাওয়া হয়।

এনপিআর না , তবে জনগননায় সম্মতি কেরালার

প্রসঙ্গত, গত সোমবার মেঙ্গালুরু আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের টিকিট কাউন্টারের কাছে একটি দাবিহীন ল্যাপটপ ব্যাগ পড়ে থাকতে দেখা যায়। ব্যাগ ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়ায় যাত্রীদের মধ্যে। পুলিশ এসে ব্যাগটি পরীক্ষা করলে সক্রিয় আইইডি বিষ্ফোরক উদ্ধার হয় ব্যাগ থেকে।বিমান বন্দরের সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখা হয়, সেখানে ধরা পড়ে টুপি পরা মধ্যবয়ষ্ক একব্যক্তি ব্যাগটি বিমান বন্দরের টিকিট কাউন্টারের সামনে রেখে চলে যাচ্ছে। তদন্তে জানা যায় ওই ব্যক্তির কাছে দুটি ব্যাগ ছিল। একটি ব্যাগ সেলুনে রেখে অটোয় চেপে অন্য ব্যাগটি নিয়ে সে বিমানবন্দরে এসেছিল।

হিন্দু মতে সাত পাঁকে বাধা পড়লেন দম্পতি, বিয়ে হল মসজিদে!

তদন্তে আরও জানা গেছে ওই ব্যক্তি ঘটনার দিন বাস থেকে নামার পর স্থানীয় সেলুনে যায়। সেখানে একটি ব্যাগ রেখে অটোয় চেপে বিমানবন্দরে আসে। এরপর ব্যাগটি টিকিট কাউন্টারের সামনে রেখে ফের অটোয় চেপে সেলুনে চলে যায়। সেখান থেকে অন্য ব্যাগটি নিয়ে অটোয় চেপে ওই ব্যক্তি কাভুরের দিকে চলে যায়। অবশেষে বুধবার নিজের দোষ স্বীকার করে আত্মসমর্পণ করেছে আদিত্য রাও।