Date : 2021-09-26

করোনা যুদ্ধে গুরত্বপুর্ণ ওঁরাও

ওয়েব ডেস্ক : ওরাও একপ্রকার সমাজ বন্ধু। দিনরাত যখনই হোক মৃতদেহ সৎকার করে চলেছেন ওঁরা। এই অতিমারি কালে যখন আক্রান্তের মৃত্যু হলে আতঙ্কিত হয়ে পড়ছেন প্রতিবেশীরা। নির্দ্বিধায় সেই মৃতদেহ দাহ করছেন ওঁরা। এরজন্য কপালে বাহবা না জুটলেও ওঁরাও পরোক্ষভাবে করোনা যোদ্ধা। তাই শ্মশান কর্মীদের সম্মান জানাতে কোলাঘাটের স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা “সংকেতে”র নতুন উদ্যোগ। দীঘা মোহনার শ্মশান কর্মীদের সমাজবন্ধু সম্মান জ্ঞাপন করল এই সংস্থা।

সমাজের অত্যন্ত নিষ্ঠুরতম কাজ ওদের হাতেই সম্পন্ন হয়। দিন হোক বা রাত পেশার দায়ে অপ্রিয় কাজটা করতে হয়। ওঁরা শ্মশান কর্মী। এই করোনা কালে ভাইরাসে আক্রান্ত মৃতদের অন্তিম ক্রিয়া নিয়ে বহু হৃদয়বিদারক ঘটনা সামনে এসেছে। যখন দেহ নিয়ে পরিবার-পরিজনরা চরম সংকটে পড়েন, তখন অন্তিম ক্রিয়া সম্পন্ন করে সংকট থেকে উদ্ধার করেন শ্মশান কর্মীরাই। কিন্তু কখনো সম্মান জোটে না ওদের ভাগ্যে। এই শ্মশান কর্মীদের সমাজ বন্ধু সম্মান জানাল কোলাঘাটের এক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা। দীঘা মোহনার শ্মশান কর্মীদের চন্দনের ফোটা, উত্তরীয়, ফুল মিষ্টি, স্মারক ও নতুন পোশাক দিয়ে সন্মান জানানো হয় সংস্থার পক্ষ থেকে।

সমুদ্র শহর দীঘার মানুষের দীর্ঘদিনের দাবি মেনে গতবছর 5 কোটি টাকা ব্যয় করে ইলেকট্রিক চুল্লি নির্মাণ করে সরকার। জেলায় করোনায় মৃত ব্যক্তিদের দেহ দাহ করা হচ্ছে এই শ্মশানেই। ভয় না পেয়ে যে শ্মশান কর্মীরা সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন, তাঁদেরই এদিন সম্মান প্রদান করা হয় সংস্থার পক্ষ থেকে। এছাড়াও ইয়াসে ক্ষতিগ্রস্ত প্রায় 300 টি পরিবারের হাতে নানান খাদ্য সামগ্রী তুলে দেন সংস্থার কর্মীরা।