Date : 2019-12-15

পরীক্ষার আগে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ জ্যান্ত কবর দিচ্ছে পড়ুয়াদের….

ওয়েব ডেস্ক:- পরীক্ষার চাপে নাজেহাল দশা জীবনে এক-আধ বার সব ছাত্র-ছাত্রীদেরই হতে হয়। মাথা ঠান্ডা রাখতে বাড়ির লোকজন মনোবল দেয়, ধর্ম-কর্ম, ঠাকুর-দেবতা, বিশ্বাস-অবিশ্বাস সবকিছুই ওষুধের মতো কাজ করে। কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান অবশ্য পরীক্ষার আগে মানসিক চাপ কমাতে সেইভাবে ছাত্র-ছাত্রীদের সাহায্য করেননি। নেদারল্যান্ডসের নিজমেগনে অবস্থিত রেডবাউড বিশ্ববিদ্যালয়ে এবার তেমনটাই করে দেখালো, তাও আবার অভিনব কায়দায়। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ছাত্র-ছাত্রীদের মানসিক চাপ কমাতে তাদের জীবন্ত অবস্থায় কবর দেওয়ার ব্যবস্থা করল। পরীক্ষার চাপে বিপর্যস্ত ছাত্র-ছাত্রীদের আধ ঘন্টার জন্য জীবন্ত অবস্থায় কবরে থাকতে ব্যবস্থা করে দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

জীবন্ত মানুষ ১০ মিনিট শ্বাসরূদ্ধ অবস্থায় থাকলে প্রাণ ওষ্ঠাগত হয়ে পড়ে, সেখানে আধ ঘন্টা কবরে থেকে বাঁচার জন্য রীতিমতো আঁকুতি মিনতি করার মতো অবস্থা তৈরি হয়েছে। কেউ চাইলে কবরে থাকার সময় সর্বাধিক ৩ ঘন্টাও করা হয়েছে। মানসিক চাপ কাটাতে হঠাৎ এমন পথ কেন? বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের ব্যাখ্যা এই পদ্ধতিতে ছাত্র-ছাত্রীদের মানসিক চাপ কেটে যাচ্ছে।

মানুষের কঙ্কালসার মুখের মতো মাছ, মুহর্তে ভাইরাল ভিডিও

স্নায়ু শিথিল হয়ে যাওয়ার কারণে মানসিক চাপ মুক্ত হয়ে পড়াশুনায় মন দিতে পারছেন তারা। তারা বক্তব্য এটা আসলে মেডিটেশনের একটি পদ্ধতি। কবরের ভিতরের নিস্তব্ধতা ছাত্র-ছাত্রীদের মানসিক চাপ বাড়াতে সাহায্য করে। জানা গিয়েছে, এই নতুন পদ্ধতিতে উপকৃত হচ্ছেন রেডবাউড বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীরাও। জীবন্ত সমাধিস্থ হতে এখন আসন সংরক্ষণের জন্য আগাম বুকিং করতে হচ্ছে পড়ুয়াদের।