Date : 2024-05-26

চন্দ্রচূড়ের সাফল্যের রহস্য কি?

নাজিয়া রহমান, সাংবাদিক : বৃহস্পতিবার প্রকাশিত হয়েছে ২০২৪ সালের মাধ্যমিকের ফল। এবার মাধ্যমিকে প্রথম হয়েছে কোচবিহার জেলার রামভোলা হাইস্কুলের ছাত্র চন্দ্রচূড় সেন। যার প্রাপ্ত নম্বর ৭০০ এর মধ্যে ৬৯৩। ‘ব্রেক লার্নিং মেথড’ চন্দ্রচূড়ের সাফলের অন্যতম চাবিকাঠি বলে মত এই কৃতি ছাত্রের।

বৃহস্পতিবার প্রকাশিত হয়েছে ২০২৪ সালের মাধ্যমিকের ফল। এবার মাধ্যমিকে প্রথম হয়েছে কোচবিহার জেলার রামভোলা হাইস্কুলের ছাত্র চন্দ্রচূড় সেন। যার প্রাপ্ত নম্বর ৭০০ এর মধ্যে ৬৯৩। চন্দ্রচূড় শুধু মেধাবী নয়, সে একজন সুবক্তাও। তার মুখ দিয়ে উচ্চারিত প্রতিটি শব্দ মানুষ ভাবাতে বাধ্য করবে। চন্দ্রচূড়ের সাফল্যের চাবিকাঠি কী? চন্দ্রচূড়ের কথায়, “সময়ানুবর্তিতা ছিল, তবে রুটিনমাফিক নয়। এরকম কোনও ব্যাপার ছিল না রোজ নির্দিষ্ট এই সময়ই পড়তে হবে।”’ তবে “ব্রেক লার্নিং মেথড’ চন্দ্রচূড়ের সাফলের অন্যতম চাবিকাঠি বলে মত এই কৃতি ছাত্রের।

এখন প্রশ্ন ‘ব্রেক লার্নিং মেথড’ কি? বিশেষজ্ঞদের মতে এটি পড়াশোনা করার এক অন্যতম পদ্ধতি । এই পদ্ধতির মাধ্যমে মস্তিষ্ক টানা একটা কাজের মধ্যে দিয়েও কিছুটা রেস্ট পায়। যেমন একটানা অনেকক্ষণ পড়লে একঘেয়েমি চলে আসে। পাশাপাশি অনেক সময় সেই পড়া ভুলেও যায় শিক্ষার্থীরা। তাই পড়তে পড়তে পড়ার মাঝে পাঁচ থেকে দশ মিনিট বিরতি নেওয়া হয় তাহলে পড়া মনেও থাকবে। আর তাতে মনও ভালো হয়। চন্দ্রচূড় এই পদ্ধতিকে অবলম্বন করে মাধ্যমিকে প্রথম হওয়ার চাবিকাঠিটা খুঁজে নিয়েছিল। “ব্রেক লার্নিং মেথড’নিয়ে চন্দ্রচূড়ের বক্তব্য, চন্দ্রচূড় প্রত্যহ ৪০ মিনিট পড়াশোনা করার পর পাঁচ মিনিটের বিরতি নিয়েছে। পড়াশোনার এই পদ্ধতি তার জীবনে সাফল্য এনে দিয়েছে বলেও মত এই কৃতি ছাত্রের। তার আরও বক্তব্য, শুধু মুখস্ত করলেই চলবে না, বুঝে পড়তে হবে। লিখে লিখে অভ্যাস করতে হবে। জ্ঞানের ভান্ডারকে আরো বাড়াতে হবে। তাহলেই সাফল্য আসতে বাধ্য।

আরও পড়ুন : দক্ষিণ বঙ্গের প্রচারে ঝড় তুলতে রাজ্যে আসছেন শাহ, নাড্ডা।